‘সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য অনেক পথ যেতে হবে’

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: দেশে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য অনেক দূর যেতে হবে। এ ব্যাপারে ‘সুশাসনের জন্য নাগরিক’ (সুজন) চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এবং ভবিষ্যতে এ চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

সুজনের ১৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সংগঠনের সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার এ কথা বলেন।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রোববার জাতীয় প্রেসক্লাবে আয়োজিত আলোচনাসভার সূচনা বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

‘সচেতন সংগঠিত ও সোচ্চার জনগোষ্ঠী গণতন্ত্রের রক্ষাকবচ, সুজনের পথচলা ও আগামীর প্রত্যাশা’ শীর্ষক ওই মতবিনিময়সভাটি সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ ড. তোফায়েল আহমেদ, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দলের(বাসদ) সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান ভুঁইয়া, নাগরিক ঐক্যের উপদেষ্টা এসএম আকরাম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে বদিউল আলম বলেন, সুজন নাগরিকদের সংগঠন। নাগরিকদের সংগঠনের কোনো নিবন্ধন লাগে না। তাই সুজনেরও নিবন্ধন নেই।

২০০০ সাল থেকে সুজন রাজনৈতিক ও নির্বাচনী সংস্কারে বিভিন্ন প্রস্তাবনা নিয়ে কাজ করছে। ছবিযুক্ত ভোটার তালিকা ও জাতীয় পরিচয়পত্র তারই ফসল।

সুজন সম্পাদক বলেন, ২০০৪ ও ২০০৫ সালে নির্বাচনী ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তনের জন্য সুজনের পক্ষ থেকে বেশ কিছু সংস্কার প্রস্তাব দেয়া হয়। পরে ওইসব প্রস্তাব আওয়ামী লীগ ও সমমনা দলগুলোও তাদের প্রস্তাবনায় অন্তর্ভুক্ত করে। যদিও আওয়ামী লীগ এখন সেগুলো মানছে না।

তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনেও প্রার্থীদের আয়কর রিটার্ন প্রকাশ করতে হয় না। কিন্তু বাংলাদেশে সুজনের আন্দোলনের কারণে স্থানীয় সরকার নির্বাচনেও তা প্রকাশ করতে হয়। ফলে ভোটাররা প্রার্থীদের সম্পর্কে জানতে পারেন।

আলোচনাসভার আগে সুজনের যেসব সংগঠক ও শুভাকাঙ্ক্ষী মৃত্যুবরণ করেছেন,  তাদের জন্য দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এর আগে সকাল সাড়ে ৯টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে থেকে একটি র‌্যালি বের করে সুজন।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »