মা ও শিশুর সঙ্গে পুলিশের এ কেমন আচরণ? (ভিডিওসহ)

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

নিউজ ডেস্ক: ভারতের মুম্বাইয়ের রাস্তার পাশে গাড়ি থামিয়ে পেছনের সিটে বসে সাত মাসের সন্তানকে স্তন্যপান করাচ্ছিলেন এক নারী। কিন্তু বাধ সাধলেন ট্রাফিক পুলিশ। তিনি গাড়িটিকে বাজেয়াপ্ত করেন। এমনকি মুম্বাই ট্রাফিক পুলিশের টোয়িং ভ্যান গাড়িটিকে তুলে নিয়েই যাচ্ছিল। অথচ তখন ওই গাড়ির ভেতরে ওই নারী ও শিশু দুজনই ছিলেন!

এই ঘটনার ভিডিও সামাজিকমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে নানা মহলে তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। ইতোমধ্যে ট্রাফিক পুলিশের এই কর্মকাণ্ডের কারণে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে সেই ট্রাফিক পুলিশ সদস্যকে।

ভারতের সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, গাড়িতেই সন্তানের খিদে লাগলে জ্যোতি মালে নামের ওই নারী রাস্তার পাশে গাড়ি থামিয়ে সন্তানকে স্তন্যপান করান। এসময় রাস্তার পাশে আরও কয়েকটি গাড়ি দাঁড়িয়ে ছিল। এ সময় কর্মরত ট্রাফিক পুলিশের কনস্টেবল গাড়িটিকে ‘বাজেয়াপ্ত’ করেন এবং ওই নারী ও তার সন্তানকে গাড়ি থেকে নামরও সুযোগ দেওয়া হয়নি।

জ্যোতি মালে জানান, তিনি ওই কনস্টেবলকে বার বার জানান তিনি খুবই অসুস্থ, এমনকি ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন দেখাতে চান তিনি। কিন্তু কর্মরত কনস্টেবল কোনো কথাই শুনতে চাননি।

মুম্বাইয়ের যে রাস্তায় এই ঘটনাটি ঘটেছে সেখানে থাকা উপস্থিত এক ব্যাক্তি পুরো ঘটনাটি ভিডিও করেন। ভিডিওতে ওই কনস্টেবলকে দেখা যায়, তিনি ফোনে কথা বলছেন। সে সময় ওই নারী কিছু বলার চেষ্টা করছেন, কিন্তু তিনি কোনো কথা কানে নিচ্ছেন না।

ইতোমধ্যে ঘটনাটির পুরো তদন্ত করা হবে বলে মুম্বাই পুলিশের জয়েন্ট কমিশনার আশ্বাস দিয়েছেন।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »