রাবির অপহৃত ছাত্রীর ‘সাবেক শ্বশুর’ আটক

Feature Image

রাবি প্রতিনিধি,স্বাধীনবাংলা২৪.কম

রাজশাহী: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) আবাসিক হলের সামনে থেকে ছাত্রীকে অপহরণের ঘটনায় ‘সাবেক শ্বশুরকে’ নওগাঁ থেকে আটক করেছে পুলিশ।

শুক্রবার রাতে নওগাঁর পত্নীতলা থানার সরদারপাড়ায় নিজের বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়।

এদিকে এ ঘটনায় রাতেই মেয়ের বাবা মতিহার থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

অপহরণের শিকার বাংলা বিভাগের চতুর্থবর্ষের শিক্ষার্থী উম্মে শাহী আম্মানা শোভা। শোভা নওগাঁর মহাদেবপুর উপজেলার মাতাজি এলাকার আমজাদ হোসেনের মেয়ে।

শোভার ‘সাবেক স্বামী’ সোহেল রানা নওগঁর পত্নীতলা উপজেলার সরদারপাড়ার আইনজীবী জয়নাল আবেদিনের ছেলে। গত বছরের ডিসেম্বরে তাদের বিয়ে হলেও দুই মাস আগে ডিভোর্স হয়ে যায়।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অধ্যাপক লুৎফর রহমান বলেন, অপহরণকারীর বাবা জয়নাল আবেদিনকে আটক করেছে পুলিশ।

এছাড়া অপহরণকারী সেহেল রানার অবস্থান আমরা পুলিশের মাধ্যমে জানতে পেরেছি, তিনি ঢাকায় অবস্থান করছেন। পুলিশ তাকে ঢাকা থেকেই আটক করতে পারবে বলে আমরা আশা করছি। আর ওই ছাত্রী যেহেতু পরীক্ষা দিতে পারেননি, তাই মানবিক দিক বিবেচনা করে তকে পরবর্তীতে একাকিভাবে পরীক্ষা দেয়ার সুযোগ দেয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

নওগাঁর পত্নীতলা থানার ওসি মাজাহারুল ইসলাম বলেন, সন্ধ্যায়  নওগাঁর নিজ বাড়ি থেকে ওই ছেলের বাবা আইনজীবী জয়নাল আবেদিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি আমাদের হেফাজতে রয়েছেন, পরে মতিহার থানায় তাকে হস্তান্তর করা হবে।

এদিকে মেয়ের বাবা অপহরণকারী সোহেল রানসহ কয়েকজনের নামে মামলা করেছেন বলে জানিয়েছেন মতিহার থানার ওসি মেহেদী হাসান।

তিনি বলেন, মামলায় হয়েছে। তবে কয়জনকে আসামি করা হয়েছে সেটা এখনি বলা যাবে না।

এর আগে উম্মে শাহী আম্মানা শোভা তাপসী রাবেয়া আবাসিক হল থেকে শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বের হয়েছিলেন বাংলা বিভাগে স্নাতক শেষবর্ষের পরীক্ষা দেয়ার জন্য।

হলের গেট থেকে ৫০ গজ এগোতেই তাকে জোর করে ‘সাবেক স্বামী’ একটি মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায় বলে জানান প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন শিক্ষার্থী।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »