রংপুরে সহিংসতা হলে ভোট বন্ধ

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা বলেছেন, রংপুর সিটি করপোরেশন (রসিক) নির্বাচনে কোনো কেন্দ্রে সহিংসতা হলে ভোট বন্ধ থাকবে।

রোববার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন ভবনের সম্মেলন কক্ষে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সঙ্গে বৈঠক শেষে ইসির মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জাবাবে সিইসি এ কথা বলেন।

নূরুল হুদা বলেন, ‘রংপুর সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে বলে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর পক্ষ থেকে আমাদেরকে আশ্বস্ত করা হয়েছে।’

বিএনপি বলছে, রংপুর সিটি নির্বাচন ইসির জন্য অগ্নিপরীক্ষা। এক্ষেত্রে ইসি বিএনপির প্রত্যাশা কতটুকু পূরণ করতে পারবে জানতে চাইলে সিইসি বলেন, ‘কারো প্রত্যাশা পূরণ নয়, আমরা অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করবো। বিএনপির আশঙ্কার কিছু নেই।’

এ্ই প্রসঙ্গে নুরুল হুদা বলেন, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের স্বার্থে যা যা করণীয়, তার সবকিছুই করা হবে।

সিইসি বলেন, প্রত্যেক প্রার্থী সমান সুযোগ পাবেন। ভোটাররা যাতে ভোট দিতে পারেন, তা নিশ্চিত করা হবে। প্রার্থীরা যাতে কাজ করতে পারেন, সে পরিবেশ তৈরি করা হবে।

এক প্রশ্নের জবাবে নুরুল হুদা বলেন, রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন সেনা মোতায়েন নিয়ে বৈঠকে কোনো আলোচনা হয়নি। কেউ এ বিষয়ে প্রস্তাবও দেয়নি।

আগামী ২১ ডিসেম্বর রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন হবে। এই নির্বাচন নিয়ে আশঙ্কার কোনো কারণ নেই বলে মন্তব্য করেন নুরুল হুদা।

সিইসি জানান, রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে পুলিশ, র‍্যাব, এপিবিএন, আনসার মিলিয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সাড়ে তিন হাজারের বেশি সদস্য মোতায়েন থাকবে। ১৯৩টি কেন্দ্রের প্রতিটিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর ২২ জন করে সশস্ত্র সদস্য মোতায়েন থাকবে। আর ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র থাকবে ২৪ জন করে সদস্য।

সিইসি জানান, পুলিশ-এপিবিএনের সমন্বয়ে ৩৩টি, র‍্যাবের ৩৩টি ও বিজিবির ৩৩ টহল দল নির্বাচনের মাঠে থাকবে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »