অবাধ ও সুষ্ঠু হলে নির্বাচনে আসবে না আ.লীগ

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: পরবর্তী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিলে আওয়ামী লীগ তাতে অংশ নেবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে সম্মিলিত ছাত্র ফোরাম আয়োজিত এক প্রতিবাদ সভায় গয়েশ্বর রায় এ মন্তব্য করেন। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবদলের সভাপতি রফিকুল আলম মজনু ও প্রথম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইদ হাসান মিন্টুর মুক্তির দাবিতে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ সদস্য বলেন, ‘নির্বাচনে আদৌ যাব না- তা নয়; নির্বাচনে যাওয়ার জন্য যা যা অন্তরায় আছে, সেসব সমস্যার মূলোৎপাটিত করে অর্থাৎ নিরসন করেই আমরা নির্বাচনে যাব। বাংলাদেশে পরবর্তী নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিলে আওয়ামী লীগ নির্বাচন বয়কট করবে। কারণ, অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনে আওয়ামী লীগ আসবে না।’

‘বিএনপি এখন শেখ হাসিনার জন্য গলার কাঁটা। ২০১৪ সালে যে কারণে আমরা নির্বাচনে যাই নাই, সেই কারণ বলবৎ রেখে আমরা নির্বাচনে যেতে পারি না। সুতরাং যেই কারণে যাই নাই, সেই কারণগুলোকে মোকাবিলা করে, নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি করেই আমরা নির্বাচনে যাব। তবুও শেখ হাসিনার অধীনে নয়।’

গয়েশ্বর রায় আরো বলেন, ‘নির্বাচন তো হবেই, বিএনপি নির্বাচনে বিশ্বাস করে। আওয়ামী লীগ নির্বাচনে বিশ্বাস করে না বলেই ১৯৭৫ সালের ২৫ জানুয়ারি শেখ মুজিবুর রহমান সংসদে ঢুকে পাঁচ মিনিটের মধ্যে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়ে সব রাজনৈতিক দল বিলুপ্ত করলেন।’

সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, সম্মিলিত ছাত্র ফোরামের আহ্বায়ক নাহিদুল ইসলাম নাহিদ প্রমুখ।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »