যে কারণে ‘ভার্জিনিটি’ বিক্রির সিদ্ধান্ত নেন এই তরুণী

Feature Image

 

মার্কিন তরুণী জিসেল পড়াশুনার পাশাপাশি পার্ট টাইম মডেলিং করেন। সম্প্রতি তিনি দাবি করেছেন যে, আবুধাবির এক ব্যবসায়ীর কাছে ৩০ মিলিয়ন অর্থাৎ ৩০ লাখ ডলারে নিজের কুমারিত্ব বিক্রি করেছেন।

পড়াশোনার খরচ চালাতেই কুমারিত্ব বিক্রি করছেন বলেও দাবি করেন এই মার্কিন তরুণী। জার্মানির একটি এসকর্ট ওয়েবসাইটের মাধ্যমে তিনি নিলামে তুলেন তার ভার্জিনিটি। পরে আবুধাবির ওই ব্যবসায়ী সবচেয়ে বেশি দাম দিয়ে কিনে নেন। দ্বিতীয় সর্বাধিক মূল্য দিতে চেয়েছিলেন হলিউডের এক অভিনেতা। তার দাম ছিল ২৪ লাখ ডলার আর তৃতীয় সর্বাধিক দাম ১৮ লাখ ডলার দিতে চেয়েছিলেন এক রাশিয়ান রাজনীতিবিদ।

১৯ বছরের ওই মডেল নিজেই একটি ভিডিও আপলোড করেছেন। সেখানেই তিনি ব্যাখ্যা দিয়েছেন যে নিজের স্কুলের পড়াশোনা চালানোর জন্য ও ভবিষ্যতে বিভিন্ন জায়গায় ঘোরার জন্য ওই টাকা তুলেছেন। তিনি আরও বলেছেন, নিজের শরীর নিয়ে তিনি কি করবেন না করবেন সেটা সম্পূর্ণ তার ব্যাপার।

জিসেল বলেন, ‘আমি ভাবিনি যে নিলামে এত দাম উঠবে।

স্বপ্ন সত্যি হওয়ার মত ঘটনা। যারা কুমারিত্ব বিক্রি করার বিরোধিতা করেন, তাদের ব্যবহারে আমি অবাক। আমি যদি ভালোবাসার মানুষ ছাড়া অন্য কারও সঙ্গে নিজেকে শেয়ার করতে চাই, সেটা আমার সিদ্ধান্ত। ‘
এই কাজের জন্য ওয়েবসাইট ব্যবহারকেই নিরাপদ মনে করেছেন তিনি। ওই ব্যবসায়ীর সঙ্গে দেখা করার সময় জিসেলকে নিরাপত্তা দেবে ওই এজেন্সি।

Loading...

আরো খবর »