৩৭ বছর বয়সে দাদি

Feature Image

মাত্র ৩৭ বছর বয়সেই দাদি হয়েছেন ব্রিটেনের লেবার পার্টির সংসদ সদস্য অ্যাঞ্জেলা রেইনার। বুধবার নিজেই টুইট করে এ খবর জানিয়েছেন তিনি।

তিন সন্তানের মা অ্যাঞ্জেলা নিজের একটা মজার নামও দিয়েছেন, ‘গ্র্যাঞ্জেলা’- যার অর্থ হলো গ্র্যান্ডমাদার অ্যাঞ্জেলা। হ্যাশট্যাগ গ্র্যাঞ্জেলা গত চব্শি ঘণ্টায় খুব ভালো ট্রেন্ডও করেছে।
‘গ্র্যাঞ্জেলা’ জানিয়েছেন, মঙ্গলবারের এক ‘ঘটনাবহুল সন্ধ্যা’র পর বুধবার ভোর ৬টায় তিনি প্রথমবারের মত দাদি হয়েছেন।

টেমসাইড ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিসের কর্মীদের এজন্য অকুণ্ঠ ধন্যবাদ জানাতেও ভোলেননি তিনি।
অ্যাঞ্জেলা রেইনার বিরোধী লেবার পার্টির প্রভাবশালী রাজনীতিবিদই নন, তিনি ছায়া শিক্ষামন্ত্রীও বটে।

তিনি অ্যাশটন-আন্ডার-লাইন আসন থেকে নির্বাচিত এমপি। তার নিজের প্রথম সন্তান রায়ানের জন্ম হয়েছিল যখন অ্যাঞ্জেরা রেইনারের বয়স মাত্র ষোলো।

তিনি পরে বলেও ছিলেন, টিনএজে মা হতে পরেই তিনি জীবনে ‘বেঁচে গিয়েছিলেন’।

মিস রেইনার নিজে ভাই-বোনের সঙ্গে বড় হয়েছিলেন গ্রেটার ম্যাঞ্চেস্টারের এক গরিব কাউন্সিল এস্টেটে।

 

সঙ্গে ছিলেন তার মা, যিনি একবর্ণ লিখতে বা পড়তে পারতেন না। মিস রেইনার নিজেও স্কুল ছেড়েছিলেন কোনও শিক্ষাগত যোগ্যতা অর্জন না করেই। কিন্তু পরে ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলনের সূত্র ধরে তিনি রাজনীতিতে আসেন এবং লেবার পার্টির মনোনয়ন পেয়ে ২০১৫ সালে হাউস অব কমন্সেও যান।
‘টিনএজ মম’- অর্থাৎ যারা কিশোরী বয়সেই মা হয়েছেন- তারা জীবনে ব্যর্থ বলে যে রাজনীতিকরা সমালোচনা করেন তাদেরও বরাবর সমালোচনা করে এসেছেন মিস রেইনার।

ব্রিটেনের নিউ স্টেটসম্যান পত্রিকা তার মধ্যে ভবিষ্যৎ লেবার পার্টি নেতার ছায়াও দেখেছে।

Loading...

আরো খবর »