কুমারখালীতে শোভাযাত্রা ও আলোচনা সভা

Feature Image

ইউনেস্কোর একটি উপদেষ্টা কমিটি ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চে দেয়া বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ভাষণটিকে বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ প্রামান্য ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে।
সারা বিশ্ব থেকে আসা প্রস্তাবগুলো দু বছর ধরে নানা পর্যালোচনার পর উপদেষ্টা কমিটি তাদের মনোনয়ন চূড়ান্ত করে ইউনেস্কোর কাছে জমা দেয়। মূলত এর মাধ্যমে বিশ্ব জুড়ে যেসব তথ্যভিত্তিক ঐতিহ্য রয়েছে সেগুলোকে সংরক্ষণ এবং পরবর্তী প্রজন্মের যাতে তা থেকে উপকৃত হতে পারে সে লক্ষ্যেই এ তালিকা প্রণয়ন করে ইউনেস্কো।

ইউনেস্কো জানিয়েছে, তাদের মেমোরি অব দ্য ওয়ার্ল্ড (এমওডব্লিউ) কর্মসূচির উপদেষ্টা কমিটি ৭ মার্চের ভাষণসহ মোট ৭৮টি দলিলকে ‘মেমোরি অফ দা ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্টারে’ যুক্ত করেছে।
ঐতিহাসিকরা মনে করেন : ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণকে ওয়ার্ল্ডস ডকুমেন্টারি হেরিটেজ-এ অংশ হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে।ইউনেস্কো মহাপরিচালক ইরিনা বোকোভা ৩০শে অক্টোবর এ সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন।

মেমোরি অব দা ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্টারে এখন পর্যন্ত অন্তর্ভুক্ত হয়েছে সব মহাদেশ থেকে ৪২৭টি গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্টস বা কালেকশন। তারই আলোকে সারাদেশের ন্যায় কুমারখালী উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে সকাল ১০টায় জেএন মাদ্যমিক স্থুল মাঠ থেকে আনন্দ শোভাযাত্রা বের হয়ে হলবাজার , গণমোড় হয়ে স্টেশন রোড, বাসস্ট্যাণ্ড হয়ে আবুল হোসেন তরুন অডিটোরিয়ামে এসে শেষ হয়। শোভাযাত্রায় খোকসা-কুমারখালী আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য আব্দুর রউফ, সাবেক সংষদ সদস্য সুলতানা তরুন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: শাহীনুজ্জামান সহ উপজেলা পরিষদের কর্মকর্তা-কর্মচারী, কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, কুমারখালী কলেজ, কুমারখালী এমএন পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কুমারখলী বালিকা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, জেএন হাইস্কুল, দুর্গাপুর হাইস্কুল, বিদ্যুত অফিস, বিসিক সেন্টার, কুমারখালী পৌরসভা, জগন্নাথপুর ইউনিয়ন পরিষদ, সদকী উ্নিয়ন পরিষদ, নন্দালুপুর ইুইনযণ পরিষদ সহ বিভিন্ন ইউনিযণ পরিষদ, সহ সর্বষ্তরের জনগণ অংশগ্রহণ করে।

 

শোভাযাত্রা শেষে আবুল হোসেন তরুন অডিটোরিয়ামে কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: শাহীনুজ্জামানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন সংষদ সদস্য আব্দুর রউফ, বক্তৃতা করেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: আকুল উদ্দিন, সদকী ইউনিয়ণ পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ প্রমুখ। পরে বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণ ও ওয়ার্ল্ড ডকুমেনটরী হেরিটেজ শীর্ষখ রচনা প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয় এবং ১৭জন ছাত্র ছাত্রীকে শুবেচ্ছা পুরস্কার প্রদান করা হয়। সবশেষে উপজেরা শিল্পকলা একাডেমির শিল্পীদের পরিবেশনায় মুক্তির গান পরিবেশিত হয়।

আরো খবর »