প্রতিবেশি বলেই মিয়ানমারের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, মিয়ানমার আমাদের প্রতিবেশি রাষ্ট্র। তাই রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে তৃতীয় পক্ষকে না এনে নিজেরা দ্বিপাক্ষিকভাবে আলোচনার মাধ্যমে বাংলাদেশ এ সমস্যার সমাধান করতে চায়।

“বঙ্গবন্ধুর পররাষ্ট্রনীতি ‘সবার সঙ্গে বন্ধুত্ব, কারও সঙ্গে শত্রুতা নয়’ নীতিতেই এগুচ্ছে বাংলাদেশ। এই সংকটেও প্রতিবেশি দেশের সঙ্গে দরোজা বন্ধ করে থাকা যায় না।”

রোববার রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁও-এ রাষ্ট্রদূতদের এক সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন এসব কথা বলেন।

এসময় তিনি আরো বলেন: প্রতিবেশি মিয়ানমারের সঙ্গে আমাদের কোন সমস্যা ছিল না। কিন্তু বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা মেজর জিয়াউর রহমানের সময় থেকে মিয়ানমারের সঙ্গে রোহিঙ্গাদের নিয়ে সমস্যা শুরু হয়েছে। এরপর আর কোন সরকার এই সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করেনি। এর ধারাবাহিকতায় রোহিঙ্গা সংকট সৃষ্টি হয়েছে।

‘‘মিয়ানমারের সঙ্গে আমাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি হয়েছে। প্রতিবেশির সঙ্গে সমস্যা সমাধানে আমরা অন্য কোন পক্ষ চাই না, নিজেরা আলোচনা করে এই সমস্যার টেকসই সমাধান চাই”।

দারিদ্র্যই বাংলাদেশের একমাত্র শত্রু হিসেবে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এর বিরুদ্ধে আমাদের সবাইকে সম্মিলিতভাবে লড়াই করতে হবে। শুধু আমাদের দারিদ্র্য নয়, প্রতিবেশিদের দারিদ্র্য নির্মূলেও আমরা যথাসম্ভব সহায়তা করতে প্রস্তুত।’

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »