ইতালির ডাক ফেরাতে পারবেন না বুফন

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ক্রীড়া ডেস্ক: মাত্র দুই সপ্তাহ আগেই আন্তর্জাতিক ফুটবলকে বিদায় বলেছেন। সুইডেনের বিপক্ষে প্লে অফ ম্যাচে হেরে ইতালির বিশ্বকাপ-স্বপ্ন শেষ হয়ে যাওয়ার মিনিট খানেক পরই তিনি অবসরের ঘোষণা দিয়েছিলেন। অশ্রুসিক্ত সেই বিদায়ের পর আবারও জাতীয় দলের জার্সি গায়ে তুলতে পারেন ইতালির কিংবদন্তি গোলরক্ষক জিয়ানলুইগি বুফন।

সোমবার মিলানে গ্র্যান গালা দেল কালসিওতে আবারও জাতীয় দলে ফেরার ইঙ্গিত দিয়েছেন বিশ্বকাপজয়ী এই গোলরক্ষক, ‘আমি জাতীয় দল থেকে একটা বিরতি নিয়েছি। জুভেন্টাস ও জাতীয় দলের জন্য আমি সব সময়ই নিজেকে একজন সৈনিক মনে করে এসেছি। ৬০ বছর বয়সেও আমি (এদের) কোনো ডাক উপেক্ষা করতে পারব না। কারণ, আমি নিজের ভেতর জাতীয়তাবোধকে ধারণ করি।’

মিলানের ওই গালা অনুষ্ঠানে ইতালির সেরা খেলোয়াড় ও সেরা গোলরক্ষকের পুরস্কার জিতেছেন বুফন। এই সম্মাননা আগলে রাখার প্রত্যয়ই ঝরেছে তাঁর কণ্ঠে, ‘আমি আনন্দিত ও গর্বিত। এমন পুরস্কার জিতব, সত্যিই কখনো ভাবিনি।’

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ইতালির লজ্জাজনক বিদায়ের পর কোচ জিয়ান পিয়েরো ভেনতুরাকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে রাশিয়া বিশ্বকাপে ব্যর্থতার জন্য সাবেক কোচকে দায়ী করেন না বুফন, ‘ভেনতুরা তাঁর সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছেন। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমরা সুইডেনের বিপক্ষে শেষ দুই ম্যাচে কোনো গোল করতে পারিনি।’

বুফনের সঙ্গে সে রাতে অবসর নিয়েছিলেন আরও দুই পুরোনো সেনানী আন্দ্রেয়া বারজাল্লি ও ড্যানিয়েল ডি রসি। এই পরাজয়ে ইতালির সফল এক যুগের করুণ অবসান হয়েছিল। ২০০৬ সালের বিশ্বকাপ জেতার পর ২০১২ সালে ইউরোর ফাইনালে উঠেছিল আজ্জুরিরা। কিন্তু ২০১৮ বিশ্বকাপের টিকিট না পাওয়ায় ঘুরে দাঁড়াতে নতুন প্রজন্মের ওপরই নির্ভর করতে হবে ইতালিকে। কে জানে, সেই নতুন প্রজন্মের নেতৃত্ব বুফনকেই নিতে হয় কি না!

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »