মাঝে মাঝে মনে হয় লাবণ্যই বনলতা

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

বিনোদন প্রতিবেদক: জয়ের আহসানের ছবি মানেই অন্য রকম এক আকর্ষণ থাকে দর্শকদের। তাছাড়া যত্রতত্র ছবিতে অভিনয়ও করেন না এই অভিনেত্রী। বেছে-বেছে কাজ করতেই স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করেন জয়া।

‘ভালোবাসার শহর’, ‘বিসর্জন’, ‘খাঁচা’, ‘দেবী’, ‘বিউটি সার্কাস’, ‘মেসিডোনা’, ‘কণ্ঠ’ ও ‘পুত্র’ ছবির পর এবার তিনি ‘ঝরা পালক’ নামে ছবিতে অভিনয় করছেন। ছবিটির শুটিং শুরু হয়েছে কলকাতায়। ‘ঝরা পালক’ নামে কবি জীবনানন্দ দাশের একটি কাব্যগ্রন্থ রয়েছে। মূলতঃ সেখান থেকেই এই ছবির নামকরণ।

সায়ন্তন মুখোপাধ্যায়ের এই ছবিতে কবি জীবনানন্দ দাশের স্ত্রী ‘লাবণ্য’র ভূমিকায় দেখা যাবে জয়াকে। ছবি নিয়ে জয়া আহসান সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘জটিল চরিত্র। স্বামী-স্ত্রী সম্পর্কের মধ্যে গ্রে এরিয়া ছিল। সেটাই দেখানোর চেষ্টা করছি। খুব ভালো লাগছে কাজটা।’ খবর আনন্দবাজারের।

কবির বিভিন্ন লেখা গবেষণা করে ছবির চিত্রনাট্য তৈরি করেছেন পরিচালক সায়ন্তন মুখোপাধ্যায়। কবির সৃষ্ট বিখ্যাত চরিত্র ‘বনলতা সেন’ বিষয়ে কোনো কিছু আছে কিনা?

এমন প্রশ্নের জবাবে জয়া রহস্য রেখেই বলেন, ‘মাঝে মাঝে মনে হয় লাবণ্যই বনলতা। তবে এ কথা নিশ্চিত ভাবে বলতে পারি, জীবনানন্দের কাজে লাবণ্যর ভূমিকা অবশ্যই রয়েছে।’

‘ঝরা পালক’ ছবিতে জীবনানন্দ দাশের বিভিন্ন বয়সের চরিত্রে অভিনয় করছেন ব্রাত্য বসু ও রাহুল। এ বিষয়ে জয়া কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে জানান, অনেক কিছুতে ব্যস্ত থাকা সত্ত্বেও ব্রাত্যদা যে ভাবে সময় দিচ্ছেন, সেটা ডেডিকেশন, শেখার মতো।

জয়া আহসান অভিনীত ‘ব্যাচেলর’, ‘ডুবসাঁতার’, ‘গেরিলা’, ‘চোরাবালি’, ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেম কাহিনী’, ‘জিরো ডিগ্রী’র মতো ছবিগুলো ব্যাপক দর্শকপ্রিয়তা পায়। বাংলাদেশের টিভি নাটকেও দাপটের সঙ্গে অভিনয় করে যাচ্ছেন মডেল ও জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »