নারী দেহে যে পাঁচটি পুষ্টি অবশ্যই জরুরি

Feature Image

নিউজ ডেস্কঃ বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নারী শরীরে কিছু বিশেষ পরিবর্তন আসে। এ সময় মেনোপজের সমস্যা হয়। বয়স বাড়তে থাকলে হৃদরোগ ও স্ট্রোকের ঝুঁকি বেড়ে যায়। এ ছাড়া হাড় ক্ষয়ের রোগও বেড়ে যায় কয়েক গুণ। তাই শরীরে যথাযথ পুষ্টি দরকার।

ভারতীয় দৈনিক টাইমস অব ইন্ডিয়ার স্বাস্থ্য বিভাগে জানানো হয়েছে পাঁচটি পুষ্টির কথা। এগুলো নারীদের জন্য খুবই জরুরি।

১. ভিটামিন-ডি

পর্যাপ্ত পরিমাণ ভিটামিন-ডি হাড়ের ভঙ্গুরতা প্রতিরোধ করে, অস্টিওপরোসিস প্রতিরোধে সাহায্য করে। শরীরে ক্যালসিয়ামকে শোষণ করার জন্য ভিটামিন-ডি প্রয়োজন। ক্যালসিয়াম হাড়কে শক্ত রাখে। সূর্যের আলো থেকে ভিটামিন-ডি পাওয়া যায়। এ ছাড়া ভিটামিন-ডি পেতে দুধ, দই, পনির ইত্যাদি খেতে পারেন।

২. ফলিক এসিড

ফলিক এসিড অথবা ফোলেট আসলে বি কমপ্লেক্সের ভিটামিন। এটি গর্ভাবস্থায় খুব জরুরি। এ ছাড়া প্রবীণ বয়সের নারীদের জন্যও এটি দরকারি। এটি হৃদস্বাস্থ্যকে সুরক্ষিত রাখে। ফলিক এসিডের অভাবে শরীরে রক্তস্বল্পতা, ওজন কমে যাওয়া, দুর্বলতা, মাথাব্যথা ইত্যাদি সমস্যা হয়। সবুজ শাকসবজি, বাদাম, অলিভ অয়েল ইত্যাদির মধ্যে ফলিক এসিড পাওয়া যায়।

৩. ক্যালসিয়াম

ক্যালসিয়াম হাড়ের নতুন কোষ গঠনে সাহায্য করে। মেনোপজের পর হাড়ের মধ্যে নতুন কোষ গঠনের ক্ষমতা কমে যায়। কেবল দুধ খেলেই ক্যালসিয়ামের চাহিদা পূরণ হয় না, এর পাশাপাশি অন্যান্য খাবারও খেতে হয়। ব্রকলি, বাঁধাকপি, মাছের নরম কাঁটা, স্যালমন ইত্যাদি ক্যালসিয়ামের চাহিদা পূরণ করে।

৪. ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড

ওমেগা ৩ ফ্যাটি এসিড খেলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে। এর মধ্যে রয়েছে পলিস্যাচুরেটেড চর্বি। এটি আর্টারিকে ভালো রাখে এবং উচ্চ রক্তচাপ কমায়। এই ফ্যাটি এসিড ভালো কোলেস্টেরলের পরিমাণ বাড়ায় এবং খারাপ কোলেস্টেরলের পরিমাণ কমায়। স্যালমন, তেলাপিয়া, কড মাছে এই ফ্যাটি এসিড পাওয়া যায়।

৫. ভিটামিন-বি১২

ভিটামিন-বি১২ নারী শরীরের জন্য খুব জরুরি। এর অভাবে অবসন্নতা, ওজন কমে যাওয়া, স্মৃতিশক্তি হ্রাস পাওয়া, বিষণ্ণতা ইত্যাদির সমস্যা হয়। এই ভিটামিন মেনোপজের পর রক্তস্বল্পতা প্রতিরোধে সাহায্য করে। মাছ, মাংস, ডিম, দুধে ভিটামিন-বি১২ পাওয়া যায়।

আরো খবর »