হরতালে মিছিলে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদ

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাম দলগুলোর ডাকা আধাবেলা হরতালে শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নিয়েছে প্রগতিশীল ছাত্র জোট।

এছাড়া সিপিবি-বাসদ ও গণতান্ত্রিক বাম মোর্চার কর্মীরা সকাল থেকে পল্টন, প্রেসক্লাব, গুলিস্তান, দৈনিক বাংলা মোড়সহ বিভিন্ন এলাকায় খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির ‘গণবিরোধী সিদ্ধান্ত’ বাতিলের দাবি জানাচ্ছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৬টায় এই হরতাল শুরুর পর কোথাও গোলযোগের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। শাহবাগ মোড় ছাড়া অন‌্যান‌্য সড়কে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে বলে পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন গত বৃহস্পতিবার গ‌্যাসের দাম বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়ার পর শুক্রবার সিপিবি-বাসদ ও গণতান্ত্রিক বাম মোর্চা আলাদাভাবে এই হরতালের ঘোষণা দেয়। তাতে সমর্থন জানায় আরও কয়েকটি দল।

গত ২৩ নভেম্বর বিইআরসির ওই ঘোষণার পরপরই হরতালের কর্মসূচি ঘোষণা করে বাম দলগুলো। বামদের এই কর্মসূচিতে সমর্থন দিয়েছে বিএনপি, বিকল্পধারা, নাগরিক ঐক্য ও জেএসডি। এছাড়া তেল-গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটিও এ হরতালে সমর্থন জানিয়েছে।

সকালে হরতালের শুরুতেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মোড় থেকে প্রগতিশীল ছাত্র জোটের কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শাহবাগ মোড়ের দিকে অগ্রসর হন। শাহবাগ থানার সামনে পুলিশ বাধা দিলে তা ভেঙে তারা শাহবাগ মোড়ে অবস্থান নেন।

কিন্তু পুলিশ এ সময় সাঁজোয়া যান থেকে বিকট শব্দ সৃষ্টি করে আন্দোলনকারীদের সরিয়ে দেয়। প্রগতিশীল ছাত্র জোটের কর্মীরা তখন মিছিল নিয়ে শেরাটন মোড় ও কাঁটাবন মোড় ঘুরে আবার শাহবাগে এসে অবস্থান নেন।

ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি জিএম জিলানী শুভ ও সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দী, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নাঈমা খালেদ মনিকা ও সাধারণ সম্পাদক স্নেহার্দি চক্রবর্তী রিন্টু, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি ইভা মজুমদার এবং বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন ও বিভিন্ন বাম ছাত্রসংগঠনের দেড়শতাধিক নেতাকর্মীকে এই বিক্ষোভে অংশ নিতে দেখা যায়।

ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দী বলেন, তারা ঘুরে ঘুরে মিছিল সমাবেশ করছেন। তাদের এই হরতাল কর্মসূচি বেলা ২টা পর্যন্ত চলবে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »