দেশের এক শতাংশ লোক প্রতিবন্ধী

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: দেশের মোট জনসংখ্যার এক শতাংশ (১৬ লাখ) প্রতিবন্ধী বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। তিনি বলেন, তাদের (প্রতিবন্ধী) প্রতি আমাদের ভালো আচরণ করতে হবে। মনে রাখতে হবে, তারা নিজের ইচ্ছায় প্রতিবন্ধী হয়নি।

রোববার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ২৬তম আন্তর্জাতিক এবং ১৯তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ‘সবার জন্য টেকসই ও সমৃদ্ধ সমাজ গড়ি’ প্রতিপাদ্যে এ বছর দিবসটি পালন করা হচ্ছে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার প্রতিবন্ধীদের বিশেষভাবে নজর দেন। বর্তমানে প্রতিবন্ধীদের জন্য ১০০টি সেবা কেন্দ্র আছে। আরও ৪০টি গড়ে তোলা হবে। সরকার প্রতিবন্ধীদের জন্য মাঠের ব্যবস্থা করছে। এর জন্য সাভারে জায়গা নেয়া হয়েছে, শিগগিরই এ মাঠ খেলার উপযুক্ত করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের প্রসংশা করে অর্থমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ একজন প্রতিবন্ধী সেবক। তিনি আন্তর্জাতিকভাবে এ ব্যাপারে প্রসংশিত। প্রতিবন্ধীদের নিয়ে কাজ করার জন্য তিনি অনেক পুরস্কার পেয়েছেন। সভাবতই এর প্রভাব সরকারের উপরেও পরবে। সরকারও প্রতিবন্ধীদের দিকে বিশেষভাবে নজর দেবে।

তিনি বলেন, জানি না বিধাতা কেন তাদের প্রতিবন্ধী বানিয়েছেন। কিন্তু আমাদের মনে রাখতে হবে, আমাদের কোনো আচরণে যেন তারা কষ্ট না পায়। এটাই হবে প্রতিবন্ধীদের জন্য বড় সেবা। তারা যেন নিজেকে অবহেলিত মনে না করেন, এ ব্যাপারে আমাদের খেয়াল রাখতে হবে।

প্রতিবন্ধীদের প্রশংসা করে অর্থমন্ত্রী বলেন, তারা একটু সহায়তা পেলে অনেক ভালো কাজ করতে পারে। যেটা সমাজে স্বীকৃত।

নিজের এলাকার প্রতিবন্ধী রজব আলীর কথা স্মরণ করে তিনি বলেন, রজব আলীকে আমি ২৫ বছর ধরে চিনি। আজ তার এখানে পুরস্কার গ্রহণ করার কথা ছিল। কিন্তু এখানে এসে জানতে পারলাম রজব আলী আর আমাদের মাঝে নেই। তিনি শারীরিকভাবে প্রতিবন্ধী হলেও মানসিকভাবে ছিলেন অনেক শক্তিশালী।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের আয়োজিত এ আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রাজধানীর মিরপুরে প্রতিবন্ধী মেলার উদ্বোধন করেন। এ ছাড়া অনুষ্ঠানে ৩টি বিশেষ ক্যাটাগরিতে প্রতিবন্ধীদের পুরস্কার দেয়া হয়।

ক্যাটাগরিগুলো হলো- (ক) সফল প্রতিবন্ধী ব্যক্তি (খ) প্রতিবন্ধীতা উত্তরণে কাজ করে এমন সফল ব্যক্তি এবং (গ) প্রতিবন্ধীতা উত্তরণে কাজ করে এমন সফল প্রতিষ্ঠান।

আলোচনা অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ডা. মো. মোজাম্মেল হোসেন এমপি এবং সচিব জিল্লার রহমান উপস্থিত ছিলেন।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »