বিএডিসি ডিলারকে জরিমানা

Feature Image

বিএডিসি নির্ধারিত মূল্যের বেশি মূল্যে ব্রি-২৯ জাতের ধান বীজ বিক্রির দায়ে কুষ্টিয়া শহরের কলেজ মোড়ে অবস্থিত কুষ্টিয়া সীড স্টোর নামের এক বিএডিসি ডিলারকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কুষ্টিয়া জেলা। একজন ভুক্তভোগীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে গতকাল বিকেল ৩টায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কুষ্টিয়া’র সহকারী পরিচালক মোঃ সেলিমুজ্জামান অভিযোগকারী এবং অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানকে তার দপ্তর ডেকে পাঠান।

শুনানিতে অভিযোগকারীর অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকার আইন ২০০৯ এর ৪০ ধারা মোতাবেক ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ভোক্তা অধিকার আইন অনুসারে জরিমানার ২৫ শতাংশ (১০ হাজার টাকা) ক্ষতিপূরণ হিসেবে অভিযোগকারী হাতে তুলে দেন জেলা প্রশাসক মো. জহির রায়হান। এ সময় জেলা প্রশাসক মো. জহির রায়হান জানান, নির্ধারিত মূল্যের বেশি মূল্যে পণ্য বা সেবা সামগ্রী বিক্রির কোনো সুযোগ নেই। ভোক্তা অধিকার আইনে অভিযোগ প্রমাণিত হলে সুনির্দিষ্টভাবে শাস্তির বিধান রয়েছে। কেউ যদি এই ধরনের কাজ করে থাকেন তাহলে, ভোক্তা অধিকার আইন অনুসারে এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অথবা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

 

এ ধরনের অভিযান পরিচালনায় তিনি জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কুষ্টিয়া সহকারী পরিচালক মোঃ সেলিমুজ্জামানকে ধন্যবাদ জানান এবং এ ধরনের অভিযানকে আরো বেগবান করার লক্ষ্যে দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। ভোক্তা ও ক্রেতাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন কোন ভোক্তা যদি কোনো ক্রেতা ব্যক্তি বা সংগঠনের কাছে থেকে কোন সেবা দ্রব্য সামগ্রী ক্রয় করে প্রতারিত হন তাহলে ভোক্তা অধিকার আইন অনুসারে তিনি অভিযোগ করতে পারবেন। তিনি বলেন ভোক্তা অধিকার আইন অনুসারে অভিযোগকারী প্রমাণপত্রসহ লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ বিষয়ে তিনি ভোক্তা ও ক্রেতাদের আরও সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।

ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কুষ্টিয়া সহকারী পরিচালক মোঃ সেলিমুজ্জামান জানান, ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ মোতাবেক আমরা অভিযুক্ত প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করে থাকি। ভোক্তা অধিকার আইননের বাস্তবায়ন ও এর সুফল পেতে সাধারণ ক্রেতা এবং ভোক্তাদের কেউ তিনি এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

আরো খবর »