উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আবারো নৌকায় ভোট

Feature Image

মানিকগঞ্জ থেকে জালাল উদ্দিন ভিকুঃ  বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আলহাজ্ব এস এম জাহিদ বলেছেন- ইসলাম শান্তির ধর্ম ,বিএনপি ও জামাত এবং হেফাজত আন্দোলনের নামে যে দিন ঢাকায় জ্বালোও পোড়াও করছিল সেই দিন শেখ হাসিনার নির্দেশে জীবন বাজি রেখে হেফাজত কে প্রতিহত করেছিলাম । রাজনীতির নামে যারা জীবন্ত মানুষকে হত্যা, রাজনীতির নামে যারা বাসে আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে মারে এটা রাজনীতি হতে পারে না ।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নের জন্য দেশ ও জনগনের উন্নয়নে জন্য কাজ করতে চাই, আমি দেশের মানুষের কল্যানে রাজনীতি করি, দুনীতি করার জন্য রাজনীতি হতে পারেনা । জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে কৃষক ,জনতা,বুদ্ধিজীবি,মুক্তিযোদ্ধারা দেশ স্বাধীন করার জন্য পাকিস্থানীদের বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল । ৩০ লক্ষ শহীদের রক্ত ও ২ লক্ষ মা-বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে বীরমুক্তিযোদ্ধারা এদেশ স্বাধীন করেছে । জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শকে বিশ্বাস করি, তার নীতি আদর্শকে বুকে ধারন করে আওয়ামীলীগের রাজনীতি করে যাচ্ছি ।

 

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর দেশ ও জাতির স্বার্থে তার সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরে দলের হাল ধরে সরকারের প্রধান মন্ত্রী হয়ে সারা দেশে ব্যাপক উন্নয়নের কাজ করে যাচ্ছে । তিনি বলেন-যেখানে সারাদেশে উন্নয়ন হয়েছে তাহলে মানিকগঞ্জ-১ আসনের দৌরতপুর-ঘিওর-শিবালয় এলাকায় রাস্তা ঘাটের এই বেহাল দশা কেন । তিনি বলেন- এই এলাকাও সরকার উন্নয়ন কাজের জন্য টিআর,কাবিটা ও কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে সেই টাকা স্থানীয় এক জনপ্রতিনিধি ও তার আত্মীয় স্বজন লুটপাট করে খাচ্ছে । ঐ জনপ্রতিনিধি বিভিন্ন স্কুল-কলেজে শিক্ষক ও সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পিয়ন নিয়োগ দিয়ে নিরহ মানুষের কাছ থেকে কোটি কেটি বানিজ্য করেছে । এই দুর্নীতি বাজদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়তে হবে ।

 

রাজাকার বিবুদ্ধে রুখে দাড়াতে মানিকগঞ্জ-১ আসনের জনগনের প্রতি আহবান জানান । নৌকা হচ্ছে স্বাধীনতা প্রতীক, নৌকা হচ্ছে দেশের সার্বভোম রক্ষার প্রতীক , আর কোন রাজাকার ও দুর্নীতি বাজদের নৌকায় উঠতে দেওয়া হবে না । তিনি বলেন- জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নীর্তি আর্দশ ছিল ক্ষুধা, দারিদ্র , গরীব দু:খী মানুষের সেবা করা । আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান আগামীতে আমাকে সুযোগ দিলে বঙ্গবন্ধুর নীর্তি আর্দশকে কাজে লাগিয়ে পশ্চিম মানিকগঞ্জ বাসি ও আমার জন্ম ভুমি এই যমুনা নদী ভাঙ্গন কবলিত খেটে খাওয়া মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করে যাবো । স্বাধীনতা সার্বোভমত্ব রক্ষায় ও উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নৌকায় আবার ভোট দেওয়ার আহবান জানান । তিনি সবাইকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে নৌকার পক্ষে কাজ করতে হবে ।

রবিবার রাতে মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার খলসী বাজারে বার আওলিয়া দরবার শরীফের ৬ষ্ঠ ওরশ মোবারকে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আলহাজ্ব এস.এম জাহিদ তার বক্তব্যে এসব কথা বলেছেন ।ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ডা: মহিদুর রহমান এর সভাপতিত্বে এছাড়া বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড: আবুল কাশেম, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ও উপজেলা সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের, ঘিওর উপজেলা আওয়ামীলীগে সভাপতি অধ্যক্ষ হাবিবুর রহমান হাবিব, জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় নেতা মো: আফজাল হোসেন, জেলা আওয়ামীলীগ সদস্য ফরিদ আহম্মেদ,জেলা আওয়ামীলীগে উপ-প্রচার সম্পাদক ভি.পি ফরহাদ, ঢাকা উত্তরের যুবলীগ নেতা মাহবুব হোসেন,কেন্দ্রীয় যবলীগ নেতা জিয়াউল হক জিয়া, চকমিরপুর ইউপি চেয়ারম্যান এস,এম শফিকুল ইসলাম শফিক,কলিয়া ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন,চরকাটারী ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক মন্ডল, বাঘুটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো: তোফাজ্জল হোসেন,ধামশ্বর ইউপি আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক হারুন কদ্দুস,দৌলতপুর উপজেলা কৃষকলীগের আহবায়ক আলমগীর হোসেন(ভি.পি.আলম), বিশিষ্ট্য ব্যবসায়ী কামরুজ্জামান নাঈম,উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম,কৃষকলীগের সদস্য সচিব মো:টুনা শেক,যুবলীগ নেতা ডা: প্রদীপ বসু,উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মো: জুয়েল রানা প্রমূখ । পরে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আলহাজ্ব এস এম জাহিদ তার ব্যক্তিগত তহবিল
থেকে বার আওলিয়া দরবারে ৬০ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করেছেন।

আরো খবর »