যে অভিযোগে অপুর ঘরে শাকিবের ডিভোর্স লেটার

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

বিনোদন প্রতিবেদক: তারকা দম্পতি শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের ডিভোর্স ছিল সময়ের ব্যাপার মাত্র। তাদের ডিভোর্স হতে যাচ্ছে এমন খবর গণমাধ্যমে অনেকবারই প্রকাশ হয়েছে। এদিকে সোমবার অপুকে তালাকনামা পাঠিয়েছেন শাকিব খান।

যদিও শাকিব-অপু কেউই এ বিষয়ে কথা বলছেন না। ভারতের একটি ছবির শুটিংয়ে ব্যস্ত আছেন শাকিব। অন্যদিকে অপুও গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলছেন না। এ অবস্থায় বিকেল থেকেই গণমাধ্যম কর্মীরা ভিড় করছেন অপুর বাসার সামনে।

সবার একটাই প্রশ্ন, কেন এই ডিভোর্স? চলুন পাঠক একটু পেছন ফিরে তাকাই। শাকিব-অপুর বিয়ের গুঞ্জন যে সত্যি ছিল তা জানা যায় এ বছর ১০ এপ্রিল। একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে ছয় মাস বয়সের ছেলে আব্রামকে সঙ্গে নিয়ে উপস্থিত হন অপু।

২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল শাকিব খান ও অপু বিশ্বাসের বিয়ে হয়। বিয়ের ব্যাপারটি কঠোর গোপনীয়তার মধ্যে রেখে তারা দুজন সমানতালে ছবির শুটিং করে গেছেন।

অপু এই বিয়ের খবর গণমাধ্যমকে বলে দেয়ায় খুব চটে যান শাকিব। প্রথমে অপুকে স্ত্রীর স্বীকৃতি দেবেন না বললেও পরে স্ত্রীর মর্যাদা দেন তাকে। কিন্তু দুজনের সম্পর্ক একদমই ভালো যাচ্ছিল না। যদিও অপু বারবার বলছেন তারা যেমন সফল জুটি তেমন সফল দম্পতিও।

কিন্তু শাকিবের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানায়, অপু বিশ্বাসের ওপর বেশ বিরক্ত শাকিব খান। আর এই বিরক্তির কারণ হলো শাকিবের ক্যারিয়ারে জন্য যা কিছু ক্ষতিকর কিংবা যারা এ নায়কের ক্ষতি চান তাদের সঙ্গেই অপুর মেলামেশা ও আড্ডা!

গেলো ২৭ সেপ্টেম্বর তাদের একমাত্র ছেলের জন্মদিনে অপু এমন অনেককেই আমন্ত্রণ করেছিলেন যাদের শাকিব পছন্দ করেন না। এছাড়া ঘর-সংসার ছেড়ে স্ত্রীর ফের সিনেমায় ব্যস্ত হতে চাওয়া, জুনিয়র শিল্পীদের সঙ্গে ফটোশুট এবং সিনেমায় চুক্তি হওয়া নিয়েও মন খারাপ স্বামী শাকিবের। শাকিব চাইছিলেন সিনেমা ছেড়ে দিক অপু। সন্তান-সংসার নিজেই ব্যস্ত থাকুক সে। কিন্তু এসব কথার পাত্তা দেননি অপু। চলেছেন নিজের খেয়াল-খুশী মতো। যা শাকিবের পক্ষে মেনে নেয়া কঠিন ছিল।

সবশেষ অপু অসুস্থ হয়ে ছেলেকে বাসার গৃহকর্মীর কাছে তালাবন্দি করে রেখে কলকাতায় যাওয়ায় তুমুল চটে যান শাকিব। শাকিব সে সময় বলেছিলেন, একজন মা কী করে পারেন এইটুকু একটা বাচ্চাকে বাসায় বন্দি করে রেখে বিদেশ যেতে।

অন্যদিকে শাকিব খানের সঙ্গে নায়িকা বুবলীর জুটি হয়ে অভিনয় মানতে নারাজ ছিলেন অপু। এ নিয়ে মুঠোফোনে বুবলীকে গালাগালিও করেছিলেন তিনি। তবুও শাকিবের সঙ্গে বুবলী একের পর ছবিতে জুটি হয়ে অভিনয় করছেন। যা অপু নিজের অপমান মনে করছিলেন, এমনটাই চলচ্চিত্র পাড়ায় গুঞ্জন।

সবমিলে অপু-শাকিবের বিচ্ছেদ যেন সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। এই ডিভোর্স নিয়ে আসলে তাদের দুজনের কী মত তা জানার জন্য অপেক্ষা করতে হবে আরো কিছু সময়।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »