বাড়িতে শৌচাগার না থাকলে বেতন বন্ধ

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

নিউজ ডেস্ক:  ভারতে উন্মুক্ত স্থানে মলত্যাগ সাধারণ ঘটনা, বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে। নারীরাও এর বাইরে নয়। অধিকাংশ পরিবারেই নেই নিরাপদ শৌচাগার। এ অবস্থায় শৌচাগার নির্মাণ ও ব্যবহারে সরকারের তরফ থেকে জনগণের প্রতি বহুবার আহ্বান জানানো হলেও তাতে কাজ হয়েছে খুবই কম।

এ অবস্থা নিরসনে এবার কোনো সরকারি স্কুল শিক্ষকের বাড়িতে শৌচাগার না থাকলে তার বেতন বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঝাড়খণ্ড রাজ্য সরকার। আপাতত রাজধানী রাঁচীতে এ ব্যবস্থা কার্যকর করা হবে।

দেশটির গণমাধ্যম সূত্রে জানা গেছে রাঁচীতে সরকারি কোনো শিক্ষকের বাড়িতে শৌচাগার না থাকলে তিনি চলতি মাসের বেতন পাবেন না। ঝাড়খণ্ডের শিক্ষামন্ত্রী নীরা যাদব জানিয়েছেন, দ্রুত রাজ্যের সবস্থানে এ নিয়ম চালু করা হবে। শিক্ষকদের দেখে এ বার শিক্ষার্থীরাও তাদের অভিভাবকদের নিজ নিজ বাড়িতে শৌচাগার তৈরি করতে বলবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

রাঁচীর ডিসি মনোজ কুমার জানান, কোনো শিক্ষকের বাড়িতে শৌচাগার না থাকলে তিনি খোলা জায়গায় মলত্যাগ না করার শিক্ষা কীভাবে দেবেন?

তিনি আরও জানান, রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজবালা বর্মার দফতর থেকে ইতোমধ্যেই এ সংক্রান্ত নির্দেশ তাদের কাছে পৌঁছেছে। শুধু সরকারি স্কুলের শিক্ষক নন, পার্শ্বশিক্ষক, অঙ্গনওয়াড়ি কর্মীও ওই নিয়মের আওতায় পড়বেন। বাড়িতে শৌচাগার না থাকলে বন্ধ হবে তাদেরও বেতন। সূত্র : আনন্দ বাজার

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »