জয়পুরহাটে বিজয় দিবসে তিন জমজ শিশুর শহীদদের শ্রদ্ধা

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম

জয়পুরহাট: মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে শনিবার সকালে জয়পুরহাট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বাবার সথে শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে এসেছে ফাহিম, ফাতিম ও তানভির নামে জমজ ভাই। তিনজনের বয়স একই। তিন ভাইয়ের চেহারাতে যেমন মিল আছে, তেমনই মিল রয়েছে তাদের দৈনিন্দিন কার্মকান্ডে। এছাড়া তিনজনে পোশাকও পড়েছে একই রকম। তাই নজরটা তাদের দিকে পড়ল খুব সহজেই।

তাদের কাছে জানতে চাইলে তারা জানায়, ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস। তাই স্মৃতিসৌধে এসেছি ফুল দিয়ে মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে। তার মতো অন্য দুই ভাইও একই কথা জানালো।

ঔষুধ কোম্পানিতে চাকুরীরত তিনজমজ শিশুর বাবা আসাদুজ্জামান জানালেন, আমার তিন ছেলে জমজ। তাদের বয়স ৭ বছর। পড়ে দ্বিতীয় শ্রেণিতে। এদের এতোটাই মিল যে বাসায় একটি ফল থাকলেও সেটা তিনজনে মিলে ভাগ করে খাবে। তাছাড়া এক ভাই কিছু করলে অন্য দুজনও একই কাজ করার জন্য বায়না ধরে।

আসাদুজ্জামান জানান, পরাধীনতা থেকে দেশকে মুক্ত করতে যারা তাদের প্রাণ উৎসর্গ করেছেন তাদের সম্পর্কে পরিচয় করিয়ে দিতেই সন্তানদের নিয়ে এসেছি, যাতে তারা মুক্তিযুদ্ধ ও আমাদের দেশের ইতিহাস সম্পর্কে ভালোভাবে জানতে পারে।

তিনি বলেন, বিজয়ের আনন্দ মূলত শিশুদের কাছে বেশি। তাদের আনন্দ দেখে খুব ভাল লাগে। অথচ ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বরের আগে হয়তো কোন শিশুর এমন আনন্দের চিন্তা করার অবকাশ ছিল না।

শুধু তিন জমজ ভাই নয়, তাদের মতো আরও অনেক শিশু শহীদ মিনারে এসেছে একাত্তরের শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে। সূর্যোদয়ের আগেই তারা শহীদ মিনারে এসে হাজির হয়েছেন। তাদের মধ্যে কয়েকজন শিশু রাফিয়া, মারিয়া, তন্ময়।

স্মৃতিসৌধ প্রাঙ্গণে পতাকা নিয়ে মাঠের এক প্রান্ত থেকে ও অন্য প্রান্তে ছুটে বেড়াচ্ছে এসব শিশুরা। ছবি তুলতে চাইলে বলেন, হ্যাঁ তুলে নেন। আজ খুশির দিন।

এত সকালে কেন এসেছ জানতে চাইলে মারিয়া বলেন, ‘এখানে আসবো বলে সারারাত জেগেছিলাম। ফজরের আযান শুনতেই সঙ্গে সঙ্গেই বাবাকে নিয়ে এসেছি।’

জয়পুরহাট শহীদ মিনারে এসে একাত্তরের বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে শুধু শিশুরাই নয়, বিজয়ের এই দিনে শত শত কিশোর, যুবক সেইসাথে বৃদ্ধরাও এসছেন।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »