হাসপাতাল ফিরিয়ে দেওয়ায় নর্দমায় তরুণীর সন্তান প্রসব!

Feature Image

প্রসব যন্ত্রণা নিয়ে সরকারি হাসপাতালে গিয়েছিলেন আদিবাসী তরুণী। কিন্তু কোনও ডাক্তারের কাগজ না থাকায় তাকে ভর্তি না করেই ফিরিয়ে দেয় হাসপাতাল। বাধ্য হয়েই এক প্রকার হাসপাতালের পরিত্যক্ত অব্যবহৃত নর্দমায় সন্তান প্রসব করেন তিনি।

প্রসবের পরেও প্রায় ১ ঘণ্টা ধরে এই নর্দমাতেই সদ্যোজাতসহ পড়ে ছিলেন তরুণী। কেউ দেখতেও আসেননি। পরে পথচারীদের উদ্যোগে ফের সদ্যোজাতসহ তরুণীকে ভর্তি নেয় হাসপাতাল। ঘটনাটি ভারতের ওড়িশার কোড়াপুটের।

শহীদ লক্ষ্মণ নায়ক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মহিলা বিভাগে ভর্তি রয়েছেন আদিবাসী সেই তরুণী ডায়না মডুলি। তার সদ্যোজাত সন্তানকে রাখা হয়েছে নিওনেটাল কেয়ার ইউনিটে। দু’‌জনেই আপাতত স্থিতিশীল বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

জানা গেছে, এই একই হাসপাতালে জ্বরে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি রয়েছেন তাঁর স্বামী।

শুক্রবার স্বামীকে দেখতেই মা ও বোনের সঙ্গে হাসপাতালে এসেছিলেন তিনি। তখনই প্রসব যন্ত্রণা শুরু হয় ডায়নার। কিন্তু এর আগে ডায়না কোনও চিকিৎসককে দেখাননি। সেকারণে তার কাছে কোনও ডাক্তারের প্রেসক্রিপশনও ছিল না। হাসপাতালের নিয়ম অনুযায়ী ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন বা কাগজপত্র ছাড়া প্রসূতিকে ভর্তি নেওয়া হয় না।
কিন্তু যে পরিস্থিতি ডায়ানার তৈরি হয়েছিল তাতে জরুরি বিভাগে তার ভর্তি নেওয়া উচিত ছিল। কিন্তু তা করেনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। যদিও হাসপাতালের গাফিলতির যাবতীয় অভিযোগ অস্বীকার করেছেন কোরাপুটের মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ললিত মোহন রথ। পুরা অভিযোগটাই মিথ্যে বলে জানিয়েছেন তিনি। ‌

আরো খবর »