মানিকগঞ্জে বাল্যবিয়ের দায়ে থানা হেফাজতে বাল্যবধূ

Feature Image

মানিকগঞ্জ থেকে জালাল উদ্দিন ভিকুঃ  ৬ষ্ঠ শ্রেনীর এক স্কুলছাত্রীকে বিয়ে দিয়ে বিপাকে পড়েছে বর ও কনের পরিবার। নব বিবাহিত ওই বাল্য বধূকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে আটক করে পুলিশ। এ ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে বরসহ তার পরিবারের লোকজন। সোমবার দুপুর মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার ধানকোড়া ইউনিয়নের তারাবাড়ি এলাকায় ওই ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয় লোকজন জানান, সাটুরিয়া উপজেলার তারাবাড়ি এলাকার কৃষক সিরাজুল ইসলামের মেয়ের সাথে একই এলাকার তুলা মিয়ার ছেলের সাথে রোববার কোর্ট ম্যারেজের মাধ্যমে বিয়ে হয়। বর আরিফুল ইসলাম একাদশ শ্রেনীর ছাত্র। আর মেয়ে ৬ষ্ঠ শ্রেনী থেকে সপ্তম শ্রেনীতে উত্তীর্ন হওয়ার অপেক্ষায়। কোর্ট ম্যারেজের একদিন পরে মেয়ের বাড়িতে হানা দেয় সাটুরিয়া থানা পুলিশ। বিষয়টি টের পেয়ে অভিভাবকরা সটকে পড়লে বাবার বাড়ি থেকে নব বিবাহিত ওই বধূকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

এ ব্যাপারে সাটুরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিনুর ইসলাম জানান, ৯৯৯ এ কল করে বাল্যবিয়ের বিষয়ে অভিযোগ করে স্থানীয় কেউ। এর পর ৯৯৯ কল সেন্টার থেকে কল পেয়ে পুলিশকে ঘটনা স্থলে পাঠানো হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বরসহ তার পরিবার ও কনের অভিভাবকরা বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে। কিন্তু বর ও কনের পরিবারের কাউকে না পেয়ে বাল্যবিয়ের শিকার ওই স্কুলছাত্রীকে প্রাথমিক জিজ্ঞিাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসা হয়েছে । বর ও কনের পরিবারের অভিভাবকদের থানায় যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

আরো খবর »