জেঁকে বসেছে শীত কাঁপছে মানুষ

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

রাজশাহীত: এবছর অনেকটা স্বাভাবিক নিয়মেই এসেছে শীত। নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই মিলেছে শীতের আমেজ। কিন্তু যে হারে শীত পড়ার কথা ছিলো, সেভাবে অনুভূত হয়নি। তবে পৌষের শুরুতেই রাজশাহীতে জেঁকে বসেছে শীত।তাপমাত্রা না কমলেও আকাশ মেঘলা থাকায় মঙ্গলবার  ভোর থেকে কনকনে ঠান্ডা পড়ছে। মেঘের কারণে বেলা ১২টা পর্যন্ত সূর্যের মুখ দেখা যায়নি।

মেঘলা আবহাওয়ায় শীতের দাপটও বেড়েছে। এর ওপর উত্তরের হিমেল হাওয়া বইতে শুরু করেছে। ফলে প্রয়োজনীয় শীতবস্ত্রের অভাবে ভাসমান ও ছিন্নমূল মানুষরা শীতে কাতর হয়ে পড়েছে। শীত নিবারণের জন্য কম দামে শীতবস্ত্র কিনতে নিম্ন ও মধ্য আয়ের মানুষ ভিড় জমাচ্ছেন মহানগরীর ফুটপাতের দোকানগুলোতে।

এছাড়া ভোরে ও সন্ধ্যার পর ছিন্নমূল মানুষগুলোকে গত দু’দিন থেকে পথের ধারে খড়-কুটায় আগুন জ্বালিয়ে শীত নিবারণ করতে দেখা যাচ্ছে। এরই মধ্যে বিভিন্ন এলাকায় সরকারি, বেসরকারি ও ব্যক্তিগত উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণও শুরু হয়েছে।

রাজশাহী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের জ্যেষ্ঠ পর্যবেক্ষক লতিফা হেলেন বলেন, মূলত আকাশে মেঘ থাকায় শীত বেশি অনুভূত হচ্ছে। তবে তাপমাত্রা তেমন নামেনি। রাজশাহীতে গত ১৩ ডিসেম্বর সকালে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১৪ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। পৌষের শুরুতে এই তাপমাত্রা স্বাভাবিক।

এর আগে গত ১৬ ডিসেম্বর কিছুটা তাপমাত্রা কম ছিলো। ওই দিন রাজশাহীতে ১১ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিলো বলেও তিনি জানান।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »