মানুষকে রক্ষায় বিজিবির ভূমিকা প্রশংসনীয়

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, স্বাধীনতাবিরোধীরাই দেশে একসময় হত্যাকাণ্ড চালিয়েছিল। তাদের সেই ধারা অব্যাহত রয়েছে। আগুন দিয়ে, পেট্রল বোমা মেরে মানুষকে হত্যা করা হচ্ছে। তবে বিজিবি খুব প্রশংসনীয় ভূমিকা পালন করেছে। এ বাহিনী মানুষকে রক্ষা করায় ব্যাপক ভূমিকা পালন করেছে।

বুধবার সকালে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) দিবস উপলক্ষে রাজধানীর পিলখানায় প্যারোড পরিদর্শন অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের বিভিন্ন দুর্যোগের সময় মানুষের জানমাল রক্ষায় বিজিবি খুব আন্তরিকভাবে দায়িত্ব পালন করে আসছে। বিজিবি নিজস্ব শৃঙ্খলা মেনে চলবে আশা করি। এ বাহিনী দেশের জন্য কাজ করে যাবে।

বিজিবি নিজস্ব শৃঙ্খলা মেনে চলবে বলে অনুষ্ঠানে আশাবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তিনি বলেন, বিজিবিকে সময়োপযোগী করে গড়ে তোলা হবে।

বিজিবির প্যারেড উপলক্ষে সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী বীর উত্তম আনোয়ার হোসেন প্যারেড গ্রাউন্ডে পৌঁছলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মো. আসাদুজ্জামান খান কামাল ও বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন তাকে স্বাগত জানান। পরে বিজিবির  সদস্যরা প্রধানমন্ত্রীকে গার্ড অব অনার দেন।

বিজিবি দিবসের কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে মন্ত্রিপরিষদের সদস্য, উপদেষ্টাবৃন্দ, উচ্চপদস্থ সামরিক-বেসামরিক কর্মকর্তা এবং কূটনৈতিক কোরের সদস্যরা উপস্থিত রয়েছেন।

সকাল ৮টায় বাহিনীর রেজিমেন্টাল পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে বিজিবি দিবসের কর্মসূচির সূচনা করেন বাহিনীর মহাপরিচালক।

দিবসটি উপলক্ষে রাজধানীর পিলখানা বিজিবির সদর দফতর এবং সব রিজিয়ন, বর্ডার গার্ড ট্রেনিং সেন্টার অ্যান্ড কলেজ, সেক্টর ও ব্যাটালিয়ন পর্যায়ে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »