‘বিসিবি সভাপতি খুব চালাক, বুদ্ধিমান মানুষ’

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ক্রীড়া ডেস্ক: ‘দক্ষিণ আফ্রিকা সফরটা নিয়ে প্রথম থেকেই তার (চন্ডিকা হাথুরুসিংহে) একটা অসন্তুষ্টি ছিল। খেলোয়াড়দের মানসিকতা নিয়েও তার সমস্যা ছিল। উদাহরণ হিসেবে, সাকিব টেস্ট খেলতে যাবে না এটাও সে মেনে নিতে পারেনি। তার কথা, সাকিব কেন খেলবে না? এমন গুরুত্বপূর্ণ একটা সফরে এমন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় কেন দেশের হয়ে খেলবে না!’- পদত্যাগের আনুষ্ঠানিকতা সারতে বাংলাদেশে এসে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনকে এমনটাই বলেছিলেন চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। হোটেল র‌্যাডিসন ব্লুতে হাথুরুসিংহের সঙ্গে সাক্ষাৎকার শেষে গণমাধ্যমে বলেছিলেন নাজমুল হাসান।

হাথুরুসিংহে এখন শ্রীলঙ্কার কোচ। সেখানে গণমাধ্যমে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে হাথুরুসিংহে সরাসরি জানিয়েছেন, সাকিবকে নিয়ে এরকম মন্তব্য বিসিবি সভাপতির কাছে করেননি তিনি! লঙ্কান কোচ হাথুরুসিংহে বলেছেন,‘আসলে এটা সত্যি নয়। মি. নাজমুল হাসান খুব চালাক, বুদ্ধিমান মানুষ। তিনি কিছু কারণে ওই মন্তব্য ব্যবহার করেছে। হয়ত সাকিবকে ‘‘ফায়ার আপ’’ করার জন্য কাজটা করতে পারেন। সাকিবকে এখন অধিনায়ক করা হয়েছে। এ ধরণের পরিস্থিতি সামলে নিতে তিনি খুবই বুদ্ধিমান।’

টেস্ট থেকে ছুটি নেওয়ায় হাথুরুসিংহে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন সাকিব আল হাসানকে। প্রাক্তন কোচের কথা শুনে, অবশ্য কোনো প্রতিক্রিয়া দেখাননি সাকিব।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের মাঝপথে বিসিবি সভাপতিকে ইমেইল পাঠিয়ে পদত্যাগের কথা জানান হাথুরুসিংহে। জাতীয় দল দেশে ফিরে আসার পর বিসিবি সভাপতি জানিয়েছিলেন, দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে এমন কিছু একটা হয়েছে যার কারণে হাথুরুসিংহে আর বাংলাদেশে থাকতে চাচ্ছে না। তবে শ্রীলঙ্কায় দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমন কিছু বলেননি বাংলাদেশকে সাড়ে তিন বছর কোচিং করানো হাথুরুসিংহে,‘শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট চতুর্থবারের মতো আমাকে চাকরির প্রস্তাব দিয়েছে। আর আমি এমন একটা পর্যায়ে এসেছি যে আমি পরিবার থেকে বেশিদিন দূরে থাকতে পারব না। শ্রীলঙ্কার কোচ হওয়ার স্বপ্ন ছিল আমার। বাংলাদেশে সাড়ে তিন বছর থাকার পর যদি শ্রীলঙ্কার সাথে চার বছর কাটাতে চাই তাহলে এটাই সেরা সময়।’

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »