রাজনীতিতে অভিনেতা রজনীকান্ত

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম
আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: এটিই রজনীকান্ত স্টাইল! বছরের শেষ দিনেই বোমা ফাটালেন এই দক্ষিণী মেগাস্টার। সব জল্পনা-কল্পনায় ইতি টেনে রাজনীতিতে প্রবেশের ঘোষণা দিলেন তিনি।

সুপারস্টার রজনীকান্ত রাজনীতিতে পা রাখে কিনা সে নিয়ে বহুদিন ধরেই নানা মহলে আলোচনা চলছিল। ৩১ ডিসেম্বর তার সিদ্ধান্ত খোলাখুলি জানাবেন বলে আভাসও দিয়েছিলেন তিনি।

এরই অংশ হিসেবে রোববার চেন্নাইয়ের রাঘবেন্দ্র মণ্ডপে ভক্তদের সঙ্গে তার সাক্ষাৎ পর্বের ষষ্ঠ দিনে রাজনীতিতে প্রবেশের কথা এক প্রকার স্পষ্টই করে দিলেন ‘থ্যালাইভা’।

পরবর্তী বিধানসভা নির্বাচনেও তাকে লড়তে দেখা যাবে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন তিনি।

এর আগে গত মঙ্গলবার ভক্তদের সমাবেশে রজনী বলেছিলেন, রাজনীতির সঙ্গে আমার যোগ নতুন কিছু নয়। ১৯৯৬ সাল থেকেই রাজনীতির সঙ্গে যোগ রেখে চলেছি। তবে প্রত্যক্ষভাবে রাজনীতিতে আসতে একটু দেরিই হয়ে গেল। আগামী ৩১ ডিসেম্বর আমার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাব।

সকাল থেকেই রাঘবেন্দ্র মণ্ডপে ছিল উপচেপড়া ভিড়। থ্যালাইভাকে দেখতে ভিড় জমিয়েছিলেন হাজার হাজার মানুষ। তার বক্তব্য শুরু হওয়ার পরই উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়ে জনতা।

রজনী বলেন, দেশের গণতন্ত্র বিপর্যস্ত। রাজনীতিকরা গণতন্ত্রের নামে সাধারণ মানুষের জমি ও সম্পত্তি হরণ করছেন। এটিই সঠিক সময় পরিবর্তনের।

রজনীর মতে, গণতন্ত্রের অবস্থা খুব খারাপ। দেশের অন্যান্য রাজ্য আমাদের (তামিলনাড়ু) নিয়ে মজা করছে। এখন সিদ্ধান্ত নিতে দেরি করলে পরে আফসোস করব।

গত কয়েক মাস ধরেই তামিল রাজনীতির অন্দরে নানা প্রশ্ন আনাগোনা করছিল- রজনীকান্ত কি রাজনীতিতে আসতে চলেছেন? এলেও কোন দলে যোগ দেবেন তিনি? বিজেপিতেই কি যোগ দেবেন রজনী, নাকি নিজের আলাদা দল গড়বেন? ঘনিষ্ঠ মহলেও সক্রিয় রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন।

তবে এদিন নিজের আলাদা দল গড়ার কথা স্পষ্ট করেছেন রজনী। আগামী বিধানসভা নির্বাচনে তাকে লড়তে দেখা যাবে বলে ঘোষণাও দিয়েছেন তিনি।

জয়ললিতার মৃত্যুর পর তামিল রাজনীতিতে যখন সংকটজনক পরিস্থিতি, সেই সময় রজনীকান্তের ওপরেই সব আশা-ভরসা রেখেছেন তার ভক্তকূল। রিল লাইফের ‘বস’ থেকে রাজনীতিতেও ‘বস’ হয়ে উঠবেন কিনা, সেদিকেই এখন তাকিয়ে গোটা তামিলনাড়ু।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »