এটাই শেষ সুযোগ, এরপর নিষিদ্ধ হতে পারেন সাব্বির

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ক্রীড়া ডেস্ক:  সাব্বির রহমান, বাংলাদেশের তরুণ ক্রিকেটারদের মধ্যে একজন উদীয়মান তারকা। কিন্তু তার পারফম্যান্সের চেয়ে ইদানীং আচরণ নিয়েই বেশি বেগ পোহাতে হচ্ছে বিসিবিকে। সবশেষ দর্শক পেটানো ও ম্যাচ রেফারির সঙ্গে অসদাচারণের অভিযোগে ছয় মাস নিষিদ্ধ ও ২০ লাখ টাকা জরিমানার সুপারিশ করেছে বিসিবি। তবে সাথে কড়া বার্তাও দিয়ে রেখেছে সাব্বিরকে। এটাই তার শেষ সুযোগ, এরপর নিষিদ্ধ হতে পারেন এ তরুণ তুর্কী।

সোমবার বিসিবির শৃঙ্খলা কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান শেখ সোহেল জানান, দোষ শিকার করে বিসিবির কাছে ক্ষমা চেয়েছেন সাব্বির। শাস্তি দেবার আগে কমিটি আগের বিষয়গুলো মাথায় রেখেছিল। আমাদের মনে হয়েছে এর আগের দুইবারের শাস্তি পেয়েও তার শিক্ষা হয়নি উল্লেখ করে সোহেল আরো বলেন, এবার আরো কঠোর শাস্তি দেয়া হয়েছে। তাকে ঘরোয়া ক্রিকেট থেকে ছয় মাস বহিষ্কার করা হয়েছে। যা অনেকে বিশাল শাস্তি। এছাড়া ২০ লাখ টাকাও জরিমানা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, এটাই সাব্বিরে জন্য শেষ সুযোগ। এরপরও যদি সে না শোধরায়, অথবা আবার কোনো অপকর্ম করে, তাহলে তাকে জাতীয় দল থেকেও নিষিদ্ধ করা হবে।

উল্লেখ্য, জাতীয় লিগের শেষ রাউন্ডের ম্যাচে গ্যালারি থেকে এক দর্শক মজা করে সাব্বির রহমানকে কিছু একটা বলেছিল। আর তাতেই মেজাজ হারান তিনি। কিছুক্ষণ পরে ওই দর্শককে সাইটস্ক্রিনের পাশে নিয়ে মারধর করেন সাব্বির।
গত ২১ ডিসম্বরের এ ঘটনার বিষয়ে ওই ম্যাচের ম্যাচ রেফারি শাওকতুর রহমান চিনু জিজ্ঞাসাবাদ করতে গেলে রেগে যান সাব্বির। হুমকি দেন ম্যাচ রেফরিকেও। একদিন পর তার বিরুদ্ধে গুরুতর শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ এনে বিসিবিতে রিপোর্ট দেন ম্যাচ রেফারি।

দর্শক পেটানোর ওই অভিযোগেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ দেয়া হয়েছে সাব্বিরকে। ফলে বিসিবি থেকে মাসিক কোনো বেতন পাবেন না সাব্বির। পাশাপাশি তাকে ২০ লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »