কিমের চেয়ে বড় পরমাণু বোতাম আছে : ট্রাম্প

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক:  উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উনকে পরমাণু অস্ত্র নিয়ে বাড়াবাড়ি না করতে সতর্ক করে দিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

কিম নানা সময় যুক্তরাষ্ট্রকে তার পরমাণু অস্ত্র থাকার কথা বলে হুঁশিয়ার করে দিয়েছেন আর এর জবাবে ট্রাম্প জানিয়ে দেন তার পরমাণু অস্ত্র আরও উন্নত এবং এর ধ্বংস করার ক্ষমতাও বেশি।

এক টুইট বার্তায় ট্রাম্প লিখেন, ‘উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন দাবি করেছেন যে তার পরমাণু অস্ত্রের বোতাম সব সময় তার ডেস্কে থাকে। যারা তার কাছে যান বা তাকে খাদ্য সরবরাহ করেন তারা কেউ অনুগ্রহ করে বলবেন যে আমারও পরমাণু বোতাম আছে আর এটি তার (কিম) চেয়ে বড় এবং বিধ্বংসী আর আমার বোতামও কাজ করে।’

কিমের বক্তব্যে নতুন উত্তেজনা

কিম গত সোমবার নববর্ষের ভাষণে যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করে বলেন যে, এই দেশটির পুরো এলাকাই উত্তর কোরিয়ার পরমাণু অস্ত্রের আওতায় রয়েছে। আর এই অস্ত্রের বোতাম সব সময় তার টেবিলে থাকে। একে কোনো বাকোয়াজি হিসেবে না দেখে বাস্তবতা হিসেবে দেখতেও যুক্তরাষ্ট্রকে সতর্ক করেন কিম।

একই ভাষণে কিম অবশ্য তার প্রতিদ্বন্দ্বী দক্ষিণ সঙ্গে শান্তি বজায় রাখার ইচ্ছার কথাও বলেন। যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি বরাবরই আক্রমণাত্মক ভাষা ব্যবহারকারী কিম এবারই প্রথম এই ধরনের কথা।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রতি উত্তর কোরিয়ার নেতার এই ‘ভালো আচরণকে’ ট্রাম্প ‘ভালো খবর হতে পারে’ আবার ‘নাও হতে পারে’ বলে উল্লেখ করেন। পাশাপাশি উত্তর কোরিয়ার প্রতি অবরোধ এবং অন্যান্য চাপ চালিয়ে যাওয়ার কথাও বলেন।

হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে বলেন, উত্তর কোরিয়ার প্রতি হোয়াইট হাউজের মনোভাবের কোনো পরিবর্তন আসেনি। দেশটিকে যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বের জন্য হুমকি হিসেবেই দেখে যাবে। পাশাপাশ আলোচনা চালিয়ে যেতে এ বিষয়ে বৈশ্বিক চাপেরও প্রত্যাশা করে যুক্তরাষ্ট্র।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »