‘বিএনপিকেও উকিল নোটিশ দেওয়া হচ্ছে’

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীকে ভুয়া, মিথ্যা উকিল নোটিশ দেওয়ার কারণে বিএনপিকেও উকিল নোটিশ দেওয়া হচ্ছে। এজন্য বিএনপিকে অপেক্ষা করতে হবে।

শুক্রবার সকালে রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ দক্ষিণের উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। ক্ষমতাসীন সরকারের চার বছর পূর্তি উপলক্ষে এই শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘একবার বেগম জিয়া বললেন জোড়াতালি দিয়ে পদ্মা সেতু! তার জবাব হয়ে গেছে, নতুন করে তার জবাব দিতে চাই না। এখন ফখরুল সাহেব বলছেন পদ্মা সেতুর ডিজাইনে ভুল আছে? পদ্মা সেতুর ডিজাইনে ভুল আছে এটা প্রমাণ করতে আসুন। তথ্য-উপাত্ত নিয়ে আসুন, ডিজাইনটা দেখান কোথায় ভুল আছে। কোথায় টেকনিক্যাল ত্রুটি! না দেখাতে পারলে আপনাকেও মামলা ফেস করতে হবে।

জিয়া পরিবারের দুর্নীতি ও বিদেশে অর্থপাচার নিয়ে এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী কথা বলেছেন মিডিয়ার রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে একটি পরিবারের দুর্নীতি নিয়ে। আমিও বলেছি সুইডেনে বসে বিএনপির এক পলাতক নেতা কিলার গ্রুপ নিয়ন্ত্রণ করছে। আমার এই নিউজের সোর্স কোথায়? সোর্স হল মিডিয়া। আমি মিডিয়া থেকে নিউজটি নিয়ে একটি দলের জেনারেল সেক্রেটারি হিসেবে এটা জানিয়েছি এটা আমার দায়িত্ব। প্রধানমন্ত্রীও দুর্নীতি নিয়ে মিডিয়ায় প্রকাশিত ইনফরমেশন নিয়ে কথা বলেছেন। এই ইনফরমেশনগুলো মিডিয়াই দিয়েছে। সেখান থেকে প্রধানমন্ত্রী সংসদের মাধ্যমে গোটা জাতিকে জানিয়েছে। তাদের (বিএনপি) দুর্নীতির কেচ্ছা রুপকথার কাহিনিকেও হার মানায়। প্রধানমন্ত্রীর সৎ সাহস আছে বলেই তিনি সত্যকে সংসদে তুলে ধরেছেন।

ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের উদ্দেশে কাদের বলেন, ‘তিনি নিজেই একটা অবৈধ বাড়ি রক্ষার জন্য আদালতে ভুয়া কাগজপত্র সাবমিট করলেন। আর গতকাল বেগম জিয়ার সেই মামলায় আদালতে গিয়ে তিনি বললেন ভুয়া কাগজপত্র সাবমিট করা হয়েছে। তিনি তো নিজেই ভুয়া কাগজপত্র সাবমিট করে অবৈধ বাড়ি রক্ষা করতে গিয়েছিলেন। তিনি তো নিজেই ভুয়া কাজ করেন।’

সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জামায়াত অংশ নিতে পারবে কি না-এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এ প্রশ্নের জবাব তো আমি দিতে পারবো না। এ প্রশ্নের জবাব দেবে ইসি। আমি যতটুকু জানি এবার দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হবে এতে রাজনৈতিকভাবে নিবন্ধিত দল ছাড়া অন্য কোনো দলের অংশগ্রহণ করার কথা নয়।

এই শীতে বিএনপির কোনো কার্যক্রম না থাকায় দলটির সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এবারের শীত ৫০ বছরের রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। তীব্র শীতের মধ্যে আমাদের নেত্রী টেলিভিশনের স্ক্রলে যখন পঞ্চগড় ঠাকুরগাওয়ের শীতের কথা দেখেন, সঙ্গে সঙ্গে তিনি আমাকে তাৎক্ষণিক পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁওয়ের উদ্দেশে যেতে বললেন শীতবস্ত্র বিতরণের জন্য। সেদিন আমরা চলে গেছি। রাতে আমরা প্রচণ্ড শীতের মধ্যে সৈয়দপুরে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছিলাম। আমরা নগদ ৩২ লাখ টাকা ও ৩৭ হাজার কম্বল বিতরণ করি। আমাদের রাজনীতি নিষ্ঠুর হয়ে গেছে। এটা শুধু প্রতিপক্ষকে গায়েল করার জন্য কিন্তু রাজনীতি শুধু প্রতিপক্ষের বিষোদাগার নয়।

‘মানুষের দুঃখ-কষ্টের এ অবস্থায়ও আওয়ামী লীগ ছাড়া কোনো রাজনৈতিক দলকে শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়াতে দেখিনি। হয়তো আওয়ামী লীগ যাওয়ার পর অনেকে যায় ফটোসেশনের জন্য। সেটা একদিনের জন্য লোক দেখানো সাহায্য।’

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »