হত্যাযজ্ঞে সেনাবাহিনীর স্বীকারোক্তি ইতিবাচক

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক:  মিয়ানমারের বেসামরিক নেত্রী অং সান সু চি বলেছেন, রোহিঙ্গাদের হত্যাযজ্ঞে সেনাবাহিনীর স্বীকারোক্তি একটা ইতিবাচক পদক্ষেপ। গতকাল শুক্রবার জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সু চি এই মন্তব্য করেন। খবর রয়টার্সের

গত বুধবার মিয়ানমারের সেনাবাহিনী প্রধানের ফেসবুক পোস্টে এক বিবৃতিতে রাখাইনের ইন দিন গ্রামে ১০ রোহিঙ্গাকে হত্যায় নিরাপত্তা বাহিনী জড়িত থাকার কথা স্বীকার করা হয়। এই প্রথম সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এ ধরনের স্বীকারোক্তি আসলো।

জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তারো কোনোর সঙ্গে বৈঠকের পর এক প্রশ্নের জবাবে সু চি বলেন, হত্যাকান্ডের তদন্ত চলছে এবং যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পরে নিজের ফেসবুক পোস্টে সু চি বলেন, আমার দেশের জন্য এটা নতুন পদক্ষেপ। আমি বিষয়টাকে এভাবে দেখি : ‘একটা দেশে আইনের শাসনের জন্য এসব কর্মকান্ডের দায়িত্ব নিতে হয়। দায়িত্ব স্বীকারের ক্ষেত্রে এটা প্রথম পদক্ষেপ এবং ইতিবাচক বলে মনে করি আমি’।

সু চি আরো বলেন, পূর্বে যা ঘটেছে তার তদন্ত চলছে যাতে পরবর্তীতে আর না ঘটতে পারে। জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গাদের মধ্যে যারা পালিয়ে গেছে তাদের ফিরিয়ে এনে নিরাপত্তা দেওয়ার জন্য সু চির প্রতি আহবান জানান।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »