পরমাণু ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রকে একঘরে করে ফেলেছে ইরান

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক:  ইরানের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী সাইয়্যেদ আব্বাস আরাকচি বলেছেন, ইরান গত এক বছরে কূটনৈতিক সংঘর্ষে যুক্তরাষ্ট্রকে ইউরোপীয় মিত্রদের কাছ থেকে আলাদা করে ফেলেছে। পরমাণু চুক্তি ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্র সম্পূর্ণ একঘরে হয়ে পড়েছে বলেও মন্তব্য করেছেন তিনি।

শনিবার রাতে ইরানের একটি টিভি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন তিনি।

২০১৫ সালে ছয় জাতিগোষ্ঠীর সঙ্গে পরমাণু সমঝোতা অর্জনের আলোচনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাওয়াদ জারিফের সঙ্গে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রেখেছিলেন আরাকচি।

ইরানের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত এক বছর ধরে পরমাণু চুক্তি বাতিল করে দেয়ার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন।

আরাকচি বলেন, ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে ক্ষমতা গ্রহণ করেই ট্রাম্প বলেছেন, তিনি ইরানের পরমাণু চুক্তি ছিড়ে ফেলবেন। এরপর তিনি এই কাজে ইউরোপীয় মিত্রদের ওপর ব্যাপক চাপ সৃষ্টি করেন এবং ইরানকে এই চুক্তিনিয়ে আবার আলোচনায় বসানোরও আপ্রাণ চেষ্টা চালান। কিন্তু ইরানের কূটনৈতিক প্রচেষ্টায় ট্রাম্পের কোনো উদ্যোগই সফল হয়নি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট শুক্রবার ইরানের পরমাণু চুক্তিথেকে বেরিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে যে হুমকি দিয়েছেন সে সম্পর্কে আরাকচি বলেন, ট্রাম্প গত অক্টোবরেও একই ধরনের হুমকি দিয়ে বলেছিলেন, কংগ্রেস যদি পরমাণু চুক্তি সংশোধনে ইউরোপীয় দেশগুলোকে রাজি করাতে ব্যর্থ হয় তাহলে তিনি একাই এই চুক্তি বাতিল করে দেবেন। কিন্তু তাতেও তিনি সফল হননি।

ইরানের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী আরাকচি বলেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন তার দেশের পরমাণু চুক্তির ব্যাপারে স্পষ্ট অবস্থান নিয়েছে। তাদের বক্তব্য হচ্ছে, এটি একটি আন্তর্জাতিক চুক্তি যা সংশোধন করা সম্ভব নয়। এ ছাড়া, এই সমঝোতার ফলে উভয়পক্ষ লাভবান হচ্ছে বলে তা বাতিল করাও অসম্ভব।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »