কাঠবিড়ালির প্রতিহিংসার জেরে হাসপাতালে যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিক!

Feature Image

 

শহরের ডাস্টবিন কেটে নষ্ট করে দিচ্ছে কাঠবেড়ালির দল। একাধিকবার নতুন ডাস্টবিন কেনার জন্য বাজেট বেড়ে যাচ্ছে। আর এই খরচ বহন করতে হচ্ছে দেশের সরকারকে।

ঘটনা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো শহরের ২১ নম্বর ওয়ার্ডের। সেখানে গাছের সংখ্যা নেহায়েত কম নয়। ফলে মহানন্দে লেজ ফুলিয়ে ডালে ডালে নেচে বেড়ায় ছোট-বড়-মাঝারি সাইজের কাঠবেড়ালির দল।

ফলমূলের পাশাপাশি, কাঠবেড়ালি মাঝেমাঝেই দাঁত বসায় ওয়ার্ডের কালো ও নীল রঙের প্লাস্টিক বিনগুলোয়। প্রায় ১৪ লাখ ডাস্টবিন রয়েছে ওয়ার্ডের আনাচেকানাচে। এবং নষ্ট হয়ে যাওয়া ডাস্টবিন প্রতিস্থাপন করে সরকারের খরচ হয়ে গেছে প্রায় ৩ লাখ ডলার। এমনই হিসেব দিয়েছেন সেখানের রাজনৈতিক নেতা ব্রুকিন্স জুনিয়র।

জনসাধারণের সামনেই এই হিসেব দেন নেতা। সঙ্গে আরও বলেন যে, এই মুহূর্তে কাঠবেড়ালিদের প্রতিরোধ করার কোনও উপায়ও তার কাছে নেই। কারণ তাদের প্রাণে মারলে ‘ওয়াল্ডলাইফ’ আইনের আওতায় পড়ে যাবেন তিনি।

ব্রুকিন্সের অসহায় স্বীকারোক্তিতে, ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে, সেদিন সকলের মুখেই হাসির রেখা ফুটে উঠেছিল। কিন্তু ঘটনার এক মাসের মধ্যেই ব্রুকিন্স জুনিয়রের জীবনে ঘটে যায় এক অদ্ভুত ঘটনা।

নভেম্বরের ১৭ তারিখ। সাইকেল চালিয়ে ব্রুকিন্স জুনিয়র চলেছিলেন কোথাও একটা। হঠাৎই এক কাঠবেড়ালি ঝাঁপিয়ে পড়ে তার উপরে। সাইকেলের চাকার সঙ্গে জড়িয়ে যায় কাঠবেড়ালিটি এবং মারা যায়। অন্যদিকে, সাইকেল থেকে ছিটকে পড়েন ব্রুকিন্স। ফাটা মাথা, ভাঙা নাক, উপড়ে যাওয়া এক মুঠো দাঁত নিয়ে তাকে ভর্তি হতে হয় হাসপাতালে।

তার পরে কেটে গেছে প্রায় তিন মাস। বর্তমানে ভাল আছেন অ্যাল্ডারম্যান ব্রুকিন্স জুনিয়র। কিন্তু ঘটনার উল্লেখ করে সংবাদমাধ্যমকে তিনি জানান যে, সেই কাঠবিড়ালিটিকে তিনি ‘সুইসাইড বম্বার’ ছাড়া আর কিছুই ভাবতে পারেন না। এবং তার উপর বদলা নেওয়ার জন্যই এমন কাণ্ড করেছিল সে।

আরো খবর »