প্রতিদিন ১৫০ রোহিঙ্গাকে গ্রহণ করবে মিয়ানমার

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক:  আগামী সপ্তাহে প্রত্যাবর্তন শুরু হওয়ার পর প্রতিদিন ১৫০ জন রোহিঙ্গা শরণার্থীকে গ্রহণ করবে মিয়ানমার। মিয়ানমারের শ্রম, অভিবাসন ও জনসংখ্যা বিষয়ক মন্ত্রী ইউ থেইন শয়ে এ কথা বলেছেন দ্য মিয়ানমার টাইমসকে। তিনি বলেছেন, আমরা (বাংলাদেশকে) বলেছি প্রতিদিন ১৫০ জনকে গ্রহণ করবো। সপ্তাহে ৫ দিন এ কার্যক্রম চলবে। মন্ত্রী ইউ থেইন শয়ে আরো জানিয়েছেন, তার অফিস রাখাইনে বসবাসকারী এবং যাদের কোনো অপরাধ বিষয়ক রেকর্ড নেই এমন শরণার্থীদের একটি তালিকা দিয়েছে বাংলাদেশকে। তার ভাষ্য অনুযায়ী, মিয়ানমারে বসবাস করতেন এমন ব্যক্তিদের একটি পুরানো লিস্ট বা তালিকা আছে মন্ত্রণালয়ে।

তাই যদি ওইসব মানুষ নিরপরাধ হয়, দেশে ফিরে আসতে চায়, তাহলে তাদেরকে গ্রহণ করার একটি লিস্ট দেয়া হবে, যদি তারা সত্যিকার অর্থে ওই এলাকায় বসবাস করে এবং ফিরে আসতে চায়।

বিশেষ করে হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকেরা ফিরে আসতে চায়। আমরা একটি তালিকা পাঠিয়েছি। অন্যদিকে আমরা একটি তালিকা পেয়েছিও। ফিরে আসার জন্য হিন্দুদের মধ্যে তীব্র আকাঙ্খা আছে। তবে শুধু তারা, যারা প্রকৃতপক্ষে রাখাইন রাজ্যে বসবাস করতো, তাদেরকে অগ্রাধিকার দেয়া হবে। তালিকায় যাদের নাম থাকবে তাদেরকে ফিরতে দেয়া হবে।

উল্লেখ্য, রোহিঙ্গাদেরকে পুনর্বাসন করতে নতুন নতুন গ্রাম তৈরি করছে মিয়ানমার সরকার। এর মধ্যে রয়েছে তাউং পাও লেতওয়ি এবং নগা খু ইয়া গ্রাম। এগুলো মংডু এলাকায়। এই দুটি লোকেশনে রোহিঙ্গাদেরকে গ্রহণ করার পর তাদেরকে নেয়া হবে হ্লা ফো খাউং অস্থায়ী শিবিরে। এ বিষয়ে সমাজকল্যাণ, ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক ইউ কো কো নাইং বলেছেন,ওই অস্থায়ী শিবিরে রোহিঙ্গাদেরকে দীর্ঘ সময় থাকতে হবে না। যদি তাদের বাড়িঘর অক্ষত থাকে, পুড়িয়ে দেয়া না হয়ে থাকে, তাহলে তারা তাদের গ্রামে ফিরে যেতে পারবে। তবে তাদেরকে নতুন যেখানে রাখা হবে তা হবে ব্যতিক্রম। কারণ, এখান থেকে তাদের জীবন জীবিকা সংগ্রহ হবে সহজতর, যেমন মাছ ধরা বা কৃষি কাজ করা।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »