বরিশাল বিভাগের মাদকের গডফাদার জাহিদের খুটির জোড় কোথায়? 

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঝালকাঠি থেকে নজরুল ইসলাম: একাধিকবার তথ্য সহকারে সংবাদ প্রকাশ হলে প্রশাসনের টনক কিছুটা লড়লেও বহল তবিয়াতেই রয়েছেন সেই মাদক সম্্রাট জাহিদ। ইতিমধ্যেই ঝালকাঠি গোয়েন্দা পুলিশসহ কয়েকটি আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তদন্তে মাঠে নামলেও স্বস্থানেই রয়েছে জাহিদ। এতে সাধারণ মানুষের মধ্যে মিশ্রপ্রতিক্রিয়া শুরু হয়েছে। অনেকে প্রশ্ন তুলেছে জাহিদের খুটির জোড় কোথায়? কিভাবে প্রকাশ্যে জাহিদ এভাবে মাদকের রামরাজত্তক কায়েম করে। বৃহত্তর বরিশালঞ্চলের মাদক স¤্রাট খ্যাত জাহিদের নতুন ঠিকানা এখন ঝালকাঠির আমিরাবাদে নতুন আস্তনা গড়ে সেখানে চলছে ব্যবসা আর মাদকের নতুন আসর। অভিযোগ উঠেছে এলাকাবাসীর মুখে মুখে। তবে ভয়ে কেউ কিছু বলকে সাজস পাচ্ছেন।

গোপনে মোবাইল ফোনে ধারণ করা এ আসরের মাদক সেবনের কিছু দৃশ্য সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও ছড়িয়ে পড়ে। এলাকায় সৃষ্টি হয় মাদক আতংক। যুব সমাজ ধংসের শংকায় এখন এলাকাবাসী। সংবাদ প্রকাশের পর আস্থানা পাল্টিয়ে নিত্য নুতন আস্থানায় বসে জাহিদের মাদক আসর বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজনে জানায়। এদিকে ঝালকাঠি গোয়েন্দা পুলিশের ওসি শফিউল্লাহ জানান, পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে তদন্ত শুরু করেছি তদন্ত শেষে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আমিরাবাদ এলাকার নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক কয়েকজন জানায়, জাহিদ নামের ওই ব্যক্তি বেশ কিছুদিন ধরে মগড় ইউনিয়নের কাচাড়ীবাড়ী এলাকায় কয়েকজন মাদক সেবীকে নিয়ে আস্তানা গড়ে তুলেছে। প্রতিদিন অপরিচিত যুবকদের নিয়ে এই এলাকায় মাদকের রাম রাজত্ব বসিয়েছে।
এদিকে সাধারণ মানুষের মাঝে এনিয়ে চাপা ক্ষোভ ও প্রশ্ন দেখা দিয়েছে । অনেকে প্রশ্ন তুলেছে কে এই জাহিদ । পুলিশের নাকের ডগায় বসে কি ভাবে মাদকের আস্তানা তৈরি হয়েছে। পুলিশ প্রশাসনের ভূমিকা নিয়েও সমালোচনা চলছে। কাচাড়ীবাড়ী এলাকার আবুল কালাম আজাদ, লেলিনসহ কয়েকজন যুবক জানায়, জাহিদ নামের ওই সন্ত্রাসী প্রথমে ওই এলাকায় কয়েকজন নিরহ মানুষকে জিম্মি করে । তারপর শুরু করে নানা অপকর্ম। বর্তমানে বেপরোয়া হয়ে মাদকের আস্তানা তৈরী করে রাম রাজত্ব কায়েম করতে চাইছে। এলাকার মানষ এখন অতিষ্ঠ হয়ে ফুসে উঠেছে। এলাকাবাসী দ্রুত জাহিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যাবস্থা গ্রহনের জন্য প্রশাসনের কাছে দাবী তুলেছে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »