লালপুরে ভারপ্রাপ্তের ভারে এক তৃতীয়াংশ প্রাথমিক বিদ্যালয়,পাঠদান ব্যাহত

Feature Image

উপজেলা প্রতিনিধি,স্বাধীনবাংলা২৪.কম

লালপুর (নাটোর)  থেকে  মাজহারুল ইসলাম: নাটোরের লালপুর উপজেলার সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রায় এক তৃতীয়াংশ বিদ্যালয় চলছে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিয়ে। ফলে দীর্ঘ দিন ধরে শিক্ষক সল্পতার কারনে বিদ্যালয় গুলোতে পাঠদান ব্যাপকভাবে ব্যাহত হচ্ছে, ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে কোমলমতি শিশুরা।

উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ১১২ টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে দীর্ঘদিন যাবৎ ৪১টি বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য রয়েছে এবং এসব বিদ্যালয় চলছে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিয়ে। ফলে ওই সব বিদ্যালয়ের পাঠদান কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে,ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে শিশুরা।

বিদ্যালয়গুলো হলো চোষডাঙ্গা, পাইকপাড়া, পাটিকাবাড়ী, বোয়ালিয়াপাড়া, রাধাকান্তপুর, রহিমপুর, সাদীপুর, বাথানবাড়ী, মোহরকয়া, কচুয়া, বিলশলিয়া, শেখচিলান, বেড়িলাবাড়ী, কেশবপুর, ভুইয়াপাড়া, সাহারা বেগম, কাজীপাড়া, মির্জাপুর, লক্ষণবাড়ীয়া,দুড়দুড়িয়া নতুনপাড়া, রামনারায়নপুর, দিলালপুর, শিবপুর, পানঘাটা, গোদরা, নওশারা সুলতানপুর, পালহারা, জোতগৌরী, আড়বাব পূর্বপাড়া, বড়বাদকয়া, ময়না শহিদ স্মৃতি, অর্জুনপুর, বিদিরপুর, কলাবাড়ীয়া, রামানন্দপুর, বালিতিতা মুসলিমপুর, রুইগাড়ী, ডাঙ্গাপাড়া চিলান, চিকাদহ ও হাবিবপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়।

রাধাকান্তপুর গ্রামের জাফর আলী নামের এক ছাত্র অভিভাবক জানান, ‘রাধাকান্তপুর স্কুলেও দীর্ঘ দিন ধরে প্রধান শিক্ষক নেই, তার ওপর বিদ্যালয়ের একজনকে ভারপ্রাপ্ত দিয়ে প্রধান শিক্ষকের কাজ করানো হচ্ছে, ফলে দুই জন শিক্ষকের ঘাড়তি থেকে যাচ্ছে, এতে করে আমাদের শিক্ষার্থীরা মারাত্মকভাবে ক্ষত্রিস্থ হচ্ছে’।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ইয়াকুব আলী শিক্ষক সল্পতার কথা স্বীকার করে জানান, প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ না হওয়া পর্যন্ত শূন্যপদগুলো পূরণ করা সম্ভব হচ্ছেনা, তবে কিছু প্রতিষ্ঠানে পদন্নতি প্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দেয়া হবে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »