মন্ত্রীর হাতে ১৮ লাখ টাকা মুল্যের স্বর্নের নৌকা দিয়ে আ’লীগে যোগদান

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম

লালমনিরহাট  থেকে জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না: স্বর্ণে মোড়ানো লাখ টাকার নৌকা সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদকে উপহার দিয়ে ক্ষমতাসীন দলে নাম বসালেন লালমনিরহাটের সবেক এক ইউপি সদস্য মমতাজ উদ্দিন।

সোমবার(২২ জানুয়ারি) রাতে আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা বহু মুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ মাঠে আনুষ্ঠানিক ভাবে আওয়ামীলীগে যোগদান করেন মমতাজ উদ্দিন। মমতাজ উদ্দিন উপজেলার মহিষখোচা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য।

স্থানীয়রা জানান, মমতাজ উদ্দিন ব্যবসার মাধ্যে তার কর্ম জিবন শুরু করলেও ইউপি সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর জাপার সাংসদ প্রায়ত মজিবর রহমানের হাত ধরে জাতীয় পার্টিতে যোগদান করেন। এরপর

বিএনপি জামায়াত জোট সরকারের সময় জাতীয় পার্টি থেকে বিএনপিতে যোগদান করেন। দেশের ক্ষমতা পরিবর্তনের পর থেকে আবারো আওয়ামীলীগে যোগদান করতে মরিয়া হয়ে উঠেন এ বার বার দল পরিবর্তনকারী রাজনৈতিক ব্যক্তি।
অবশেষে সমাজ কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ এমপি’র হাতে লাখ টাকার স্বর্ণে মোড়ানো নৌকার প্রতিকৃতি উপহার দিয়ে সোমবার আনুষ্ঠানিক ভাবে আওয়ামীলীগে যেগদান করেন।

১৮ লাখ টাকা খরচে আয়োজন করা হয় এ যোগদান অনুষ্ঠানের। ৬টি গরু ও ১৫টি ছাগল রান্না করে অনুষ্ঠানে আগত সর্বসাধারনের জন্য খাবার প্যাকেট ২২ হাজার, অতিথিদের জন্য ৩ হাজার ভিআইওপি প্যাকেট। ৬শত স্বেচ্ছাসেবকের প্রত্যেকের জন্য একটি করে টি-শার্ট, তোড়ন রয়েছে মোট ৬টি। আগত সর্ব সাধারনের বসার জন্য কোন ব্যবস্থা না হলেও অতিথিদের জন্য করা মঞ্চ তৈরী করতে ৩/৪ দিন সময় লেগেছে বলে জানান আয়োজকরা।

ক্ষমতাসীন দলে সদস্য যোগদানকারী মমতাজ উদ্দিনের ছেলে মামুন জানান, এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করতে তাদের প্রায় ১৮ লাখ টাকা ব্যায় হয়েছে। যা পুরোটাই তাদেরকে বহন করতে হয়েছে।

নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক স্থানীয় এক রাজনৈতিক বিশ্লেষক জানান, দল বা কোন মতাদর্শকে ভালবেসে যারা রাজনীতি করে তারা বারংবার দল বদল করেন না। যারা নিজের স্বার্থকে বেশি করে দেখেন তারাই ক্ষমতার দাপট দেখাতে বার বার দল বদল করেন। দল বদলকারী এসব নেতাদের কথা সাধারন ভোটাররা কতটুকু গ্রহন করে তা বুঝার বাকি থাকে না।

নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রবীন এক নেতা বলেন, যে ব্যক্তি বারংবার দল বদল করেন এমন কোন কর্মীকে দলে না নিতে প্রতিমন্ত্রীকে অনেক বার বলা হলেও তিনি আজ এ যোগদান অনুষ্ঠানে এসেছেন। ক্ষমতার পরিবর্তন হলে আজকের এ নবীন কর্মী(মমতাজ উদ্দিন) আবারো মুখ ফিরে নিবে। তাহলে সময় নষ্ট করে এমন নীতিভ্রষ্ট লোককে দলে ভিড়ায়ে লাভের কিছু নেই।

মহিষখোচা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নবিয়ার রহমান প্রামানিকের সভাপতিত্বে যোগদান অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট মতিয়ার রহমান।

যোগদান অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামীলীগের মিনিয়র সহ সভাপতি সিরাজুল হক, সহ সভাপতি তাহির তাহু, যুগ্ন সম্পাদক অ্যাডভোকেট বাদল আশরাফ, আদিতমারী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শওকত আলী, সম্পাদক রফিকুল আলম প্রমুখ।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »