আরিচা-দৌলতপুর-ঘিওর-টাঙ্গাইল আঞ্চলিক সড়ক ধসে যানবাহন চলাচলে বাধা

Feature Image

মানিকগঞ্জ থেকে জালাল উদ্দিন ভিকুঃ  মানিকগঞ্জের ঘিওর ধলেশ্বরী নদীতে অবৈধ ড্রেজারের পানির তোরে ভেঙ্গে গেছে আরিচা-দৌলতপুর-ঘিওর টাঙ্গাইল আঞ্চলিক মহাসড়কের বানিঘোনা এলাকার রাস্তার ভেপমেন্ট,¯েøপ প্রোটেকশন ধসে যানবাহন চলাচল বিঘিœত। মানিকগঞ্জ সড়ক ও জনপথের আওতাধীন আরিচা-দৌলতপুর-ঘিওর আঞ্চলিক মহাসড়কের বানিঘোনা এলাকায় ড্রেজার দিয়ে ব্যক্তি মালিকাধীন বালি ও পানি দিয়ে একটি পুকুর ভরাট করছে এসময় সিপেজ প্রেসারের ফলে রাস্তার ধসে পড়ার অভিযোগ । এদিকে স্থানীয়রা অভিযোগ করেন-প্রশাসনকে ম্যানেজ করে ঘিওরের শ্রীধর নগর ধলেশ্বরী নদীতে কয়েকটি অবৈধ ভাবে ড্রেজার চলছে ।

বৃহস্পতিবার সরেজমিনে দেখা গেছে- আরিচা-দৌলতপুর-ঘিওর-টাঙ্গাইল আঞ্চলিক মহাসড়কের বানিঘোনা মোড় এলাকায় সড়ক ও জনপথে নির্মিত পাকা সড়কের নিচ দিয়ে পাইলিং করে ড্রেজারের পাইপ নিয়ে সড়কের পাশে ব্যক্তি মালিকাধীন একটি পুকুর ভরাটের কাজ চলছে । ড্রেজারের পানি নিস্কাশনের জন্য বিকল্প কোন ব্যবস্থা নেই । এখানে আর কয়েক দিন ড্রেজিং কাজ চলতে থাকলে পুকুরের পাশে রাস্তাটি সম্পূর্ন ভেঙ্গে যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবে । স্থানীয়রা জানান- ঘিওর উপজেলার তেরশ্রী ঠাকুর পাড়া গ্রামের বক্কার ঠাকুর,আব্দুল বাতেন,নাহিদ, ঘিওরে তাপস সাহা সহ কয়েক জন প্রভাবশালী মাটি ও বালি খেকো অবৈধ ড্রেজিং ব্যবসা বীরদর্পে চালাচ্ছে ।এলাকাবাসী আরো জানান-তারা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ক্ষমতার দাপট দেখিয়ে অবৈধ ড্রেজিং ব্যবসা পরিচালনা করছে ।

এবিষয়ে ড্রেজার ব্যবসায়ী বক্কার ঠাকুর জানান-সড়ক ও জনপথের লোকজনকে ও প্রশাসনকে ম্যানেজ করে রাস্তার নিচ দিয়ে পাইলিং করে ড্রেজারের পাইপ নিয়েছে । ড্রেজারের পানি ও মাটির চাপে রাস্তা ধসেনি তার পরেরও আমরা মানবিক কারনে নিজেদের টাকা খরচ করে ধসে যাওয়া স্থানে মাটি ভরাট করে মেরামত করে দিচ্ছি । ড্রেজারের ব্যবসা অবৈধ কিন্তু চুরি করে খাইনা প্রশাসনকে ম্যানেজ করে ব্যবসা করি ।

এবিষয়ে মানিকগঞ্জ সড়ক ও জনপথের নির্বাহী প্রকৌশলী মহিবুল হক জানান- আরিচা-দৌলতপুর-ঘিওর আঞ্চলিক মহাসড়ক খুবই গুরুত্বপূর্ণ । এই সড়ক দিয়ে টাঙ্গাইল,সিরাজগঞ্জ জেলার কয়েকটি উপজেলার জনসাধারন ও ব্যবসায়ীদের নিবীর চলাচলের একমাত্র যোগাযোগের মাধ্যম । ড্রেজারের পানির চাপে সড়কের প্রায় ১ শ ফুট পাকা সড়ক ভেঙ্গে ধসে পড়েছে । যার ক্ষয়ক্ষতি পরিমান প্রায় ৫০ লক্ষ টাকা । যে কোন সময় আরিচা-দৌলতপুর-ঘিওর আঞ্চলিক সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যেতে পারে ।
এদিকে সড়ক ধসের কারনে দায়সারা ভাবে মানিকগঞ্জ সড়কও জনপথের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো: মতিয়ার রহমান ২৩ জানুয়ারী ২০১৮ তারিখে দৌলতপুর থানায় একটি সাধারন ডায়রী করেছে ।

এবিষয়ে দৌলতপুর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) রকিবুজ্জামান জানান- মানিকগঞ্জ সড়কও জনপথের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো: মতিয়ার রহমান একটি সাধারন ডায়রী করেছে । কারো নাম উল্লেখ করেনি ।

আরো খবর »