প্রত্যাবাসনের আগে রোহিঙ্গা শিশুদের নিরাপত্তা দরকার

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক:  রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের আগে মিয়ানমারে রোহিঙ্গা শিশুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা প্রয়োজন বলে মনে করছে ইউনিসেফ।

মিয়ানমারে সহিংসতার শিকার হয়ে বাংলোদেশে পালিয়ে আসা মোট রোহিঙ্গাদের ৫৮ শতাংশই শিশু। তাদের অনেকেই সহিংসতার ঘটনায় এখনো মানসিক অস্থিরতার মধ্যে আছে বলে জানিয়েছে ইউনিসেফের ডেপুটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর জাস্টিন ফোরসিথ।

গত বছরের ২৫ আগস্ট থেকে মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে এসেছে অন্তত ১০ লাখ নায়িকা। এর মধ্যে অর্ধেকই হচ্ছে শিশু।

মিয়ানমারে ফিরে যাওয়া শিশুদের নিরাপত্তা ও ভালো থাকার নিশ্চয়তা ছাড়া তাদের ফেরার আলোচনা করা অযৌক্তিক বলেই মনে করছে ইউনিসেফ। তাদের মতে, বিগত কয়েকদিনেও আমরা মিয়ানমারের গ্রামগুলোতে আগুন ও গুলির ঘটনা শুনেছি।

ফরসিথ আরো বলেন, সামনে বৃষ্টির দিনগুলোতে অবস্থা আরো ভয়াবহ হবে। সেখানেও বেশ বড়সড় চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে।

সহযোগীদের সহায়তায় ইউনিসেফ চট্টগ্রামের রোহিঙ্গা ক্যাম্পে অনেক অনেক বিশুদ্ধ পানির নলকূপ স্থাপন করেছে। প্রায় ১৬০০০ টয়লেট স্থাপন করেছে এবং কলেরার শিকার শিশু ও বড়দের পুষ্টি প্রদানেরও ব্যবস্থা করছে। সেখানে শিশুদের পড়াশোনার ব্যবস্থাও করেছে ইউনিসেফ।

তবে এখনো শিশুদের পাচারকারী ও অন্যান্য ভীতিকর পরিস্থিতি থেকে বের করতে এবং তাদের মানসিক সহায়তা প্রদান করতে আরো কিছু পদক্ষেপ নেওয়া দরকার বলে মনে করছে ইউনিসেফ।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »