মৃত বলে ফেলে দেওয়ার সময় কেঁদে উঠল নবজাতক

Feature Image

চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে ডেলিভারির মাধ্যমে পুত্র সন্তান প্রসব করেন সোমা গাইন নামে এক নারী। কিন্তু চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত বলে ঘোষণা দিয়ে টেবিলের ওপর তুলা মুড়িয়ে ফেলে রাখেন। প্রায় তিন ঘণ্টা এভাবে রাখার পর ফেলে দিতে গেলে কেঁদে উঠে ওই নবজাতক।

বৃহস্পতিবার খুলনার দাকোপ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এমন ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।

সোমা গাইনের স্বামী উপজেলা সমবায় অধিদপ্তরের অফিস সহকারী পুরঞ্জন গাইন বলেন, গত বুধবার স্ত্রী সোমা গাইনের প্রসব ব্যথা উঠলে রাত ২টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক শামীম হোসেনের তত্ত্বাবধানে তাকে ডেলিভারির জন্য কেবিনে নেয়া হয়। সেখানে সোমা গাইন এক পুত্র সন্তান প্রসব করেন। প্রসবের পর চিকিৎসক শিশুটিকে মৃত বলে ঘোষণা করেন এবং টেবিলের ওপর তুলা মুড়িয়ে ফেলে রাখেন। সকালে হাসপাতালের আয়া ফেলে দিতে গেলে কেঁদে ওঠে ওই নবজাতক।

খবর জানতে পেরে রোগীর অভিভাবকরা মা ও শিশুটিকে বৃহস্পতিবার সকালে খুলনা শিশু হাসপাতালে ভর্তি করেন।

বাচ্চাটিকে বর্তমানে ওয়ার্মে রাখা হয়েছে বলে জানান হাসপাতালের নার্স লিপিকা রানী সাহা।

এদিকে, ঘটনাটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এবং এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে। বিষয়টির তদন্তমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

আরো খবর »