কন্যাসন্তান জন্ম দেওয়ায় স্ত্রীকে ‘ইলেকট্রিক শকে’ হত্যার চেষ্টা!

Feature Image

ভারতের অন্ধ্র প্রদেশের বাসিন্দা রাজারত্নম-প্রশান্তি দম্পতি। তাদের এক পুত্রসন্তান রয়েছে। কিন্তু দ্বিতীয়বারও পুত্রের চাহিদা ছিল রাজারত্নমের। কিন্তু সেই আশা পূরণ হয়নি। জন্ম হয়েছে কন্যাসন্তানের। এই অপরাধেই ঘুমের মধ্যে স্ত্রীকে বিদ্যুতের শক দিয়ে মেরে ফেলার চেষ্টা করলেন রাজারত্নম। পেশায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার ওই ব্যক্তিকে স্ত্রী হত্যা চেষ্টার অভিযোগে গ্রেফতার করেছে স্থানীয় পুলিশ।

জানা যায়, চার বছর আগে অন্ধ্রপ্রদেশের কৃষ্ণা জেলার বাসিন্দা এস রাজারত্নমের সঙ্গে বিয়ে হয় প্রশান্তির। অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই বাড়তি পণের জন্য প্রশান্তির উপর অত্যাচার চালাত রাজারত্নম ও তাঁর পরিবার। বাপের বাড়ির সম্মানের কথা ভেবে এ অত্যাচার মেনে নিয়েছিলেন গৃহবধূ। দুই বছর আগে এক পুত্রসন্তানেরও জন্ম দেন প্রশান্তি। এরপরও রাজারত্নমের অত্যাচার থামেনি। কিন্তু সম্প্রতি দ্বিতীয় সন্তান কন্যা হওয়ায় তা বেড়ে যায়।

সম্প্রতি ঘুমের মধ্যে প্রশান্তিকে মারার চেষ্টা করে রাজারত্নম। ঘুমন্ত প্রশান্তির হাতে বিদ্যুতের তার জড়িয়ে দেয়। কিন্তু সুইচ দেওয়ার আগেই ঘুম ভেঙে যায় প্রশান্তির। নিজেকে বাঁচানোর চেষ্টা করেন তিনি। রাজারত্নমের সঙ্গে ধস্তাধস্তি হয়। কোনওমতে নিজেকে বাঁচিয়ে ঘর থেকে বেরিয়ে আসেন গৃহবধূ। নিজের সন্তানদের নিয়ে সোজা বাপের বাড়ি পৌঁছান।

কয়েকদিন পরে স্থানীয় পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে, প্রশান্তিকে প্রাণে মারার চেষ্টা ব্যর্থ হওয়ার পরই ঘর থেকে বেরিয়ে যায় রাজারত্নম। তার অফিসে গিয়ে জানা যায়, ঘটনার পর থেকে অফিসেও আসছে না সে। ওয়ার্ক ফ্রম হোম-এর সুযোগ নেওয়া রয়েছে তার। পরে অফিসের মাধ্যমেই তার লোকেশন ট্রেস করা হয়। গ্রেপ্তার করা হয়েছে রাজারত্নমকে। ছেলেকে সঙ্গ দেওয়ার অভিযোগ ইঞ্জিনিয়ারের মা-বাবাকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রাজারত্নমের বিরুদ্ধে খুন ও ৪৯৮-এ ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

আরো খবর »