যৌন নিপীড়নের শিকার হয়ে সব খুইয়েছিলাম আমি

Feature Image

আমেরিকার নিউ মেক্সিকো স্টেটের একটি শহর লাস ক্রুসেস। সেই শহরের মেয়ে আব্রিয়ানা মোরারেস। যুগে যুগে নারী তো বটেই, এমনকি কন্যা শিশুটি পর্যন্ত যৌন নির্যাতনের হাত থেকে রেহাই পায়নি। সমাজের প্রতিটি শ্রেণি-পেশার নারীরা আজ প্রতিবাদী হয়ে উঠছেন। আর সেই প্রতিবাদী মনোভাব নিয়ে নিগৃহীত মেয়েদের সহায়তাক এগিয়ে এসেছেন আব্রিয়ানা।

এই সুন্দরী সাবেক মিস লাস ক্রুসেস টিন হওয়ার গৌরব অর্জন করেছেন। বর্তমানে মিস পিকাচো হিলস আউটস্ট্যান্ডিং টিন এর মুকুট তার মাথায়। তিনি নিজেও যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছিলেন। মাত্র ১৫ বছর বয়সে সেই ভয়ংকর অভিজ্ঞতা তার। এমন অভিজ্ঞতা যেন আর কারো না হয় সেজন্যে তরুণ প্রজন্মের একটি নেটওয়ার্ক গড়ে তুলতে চাইছেন তিনি।

তার এই প্রচেষ্টার ধারাবাহিকতায় গড়ে উঠেছে ‘দ্য সেক্সুয়াল অ্যাসাল্ট ইয়ুথ সাপোর্ট নেটওয়ার্ক (এসএওয়াইএসএন)।

ওই ঘটনার পর আমার জীবটা একেবারেই বদলে যায়, বলেন আব্রিয়ানা। সবকিছু এলোমেলো লাগতে শুরু করে। যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছেন- এ খবরটি সবার কাছে ছড়িয়ে পড়ে। এটা জানার পর আমি আমার সব বন্ধুকে হারিয়েছি। অথচ তাদের আমি বন্ধু ভেবেছিলাম যা সুখ-দুঃখে আমার পাশে থাকবে। তখন সব খুইয়েছি আমি। তখন বুঝতে পেরেছিলাম, যদি এগুলো সামলানোর কোনো উপায় থাকতো, তবে যেকোনো কিছুর বিনিময়ে সেই উপায় হাসিল করতাম, বলেন বিউটি কুইন।

তার এই নেটওয়ার্কের নতুন ওয়েবসাইট খোলা হয়েছে। সেখানে নির্যাতিতারা অভিজ্ঞতা শেয়ার করছেন সবার সঙ্গে। এগুলো নিয়ে গবেষণার মাধ্যমে তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনার কার্যকর উপায় বের করা যাবে। তাদের আসলে দরকার সেই দুঃস্বপ্নের অভিজ্ঞতা থেকে বেরিয়ে আসা। মানসিক বিপর্যয় কাটাতে দরকার সামাজিক সহায়তা।

 

বিউটি কুইন হিসেবে তিনি কেবল একটি অঞ্চলের বা গোষ্ঠীর প্রতিনিধিই নন আব্রিয়ানা, তিনি সেই সকল নারীদের পাশে আলোর প্রতীক যারা যৌন নিপীড়নের শিকার হওয়ার পর চারদিকে অন্ধকার দেখছেন। এই মেয়েদের প্রতি অন্যদের মানসিকতা ও সমাজের দৃষ্টিভঙ্গী আমূলে বদলাতে চান তিনি।
সূত্র : ইন্ডিয়া টাইমস

আরো খবর »