খালেদা জিয়ার দন্ড বাড়াতে দুদকের আপিল উপস্থাপন

Feature Image

ঢাকা : জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বেগম খালেদা জিয়ার সাজা বাড়াতে দুনীর্তি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা আপিল আজ উপস্থাপন করা হয়েছে।
আপিলের গ্রহণযোগ্যতার বিষয়ে শুনানির জন্য আগামীকাল দিন ধার্য করেছে হাইকোর্ট।
বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ শুনানির জন্য এ দিন ধার্য করেন। আদালতে আপিল শুনানির জন্য উপস্থাপন করেন দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম খান।

দুদকের আইনজীবী খুরশীদ আলম খান আজ সাংবাদিকদের কথা জানান। হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় গত ২৫ মার্চ এ আপিলদাখিল করা হয়।

তিনি বলেন, এ মামলায় প্রধান আসামিকে দেয়া হয়েছে ৫ বছর সাজা কিন্তু সহযোগিদের দেয়া হয়েছে ১০ বছর করে। প্রধান আসামির সাজাটা অপর্যাপ্ত মনে করে দুদক। এ কারণে নিম্ন আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে সংক্ষুব্ধ হয়ে দুদক এ আপিল করেছে।

এর আগে নিম্ন আদালতের দেয়া রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করেন খালেদা জিয়া। আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করে (এডমিট) হাইকোর্ট। এ ছাড়াও তার জামিন আবেদনের শুনানি নিয়ে গত ১২ মার্চ খালেদা জিয়াকে চার মাসের জামিন দেয় হাইকোর্ট।হাইকোর্টের দেয়া জামিন স্থগিত চেয়ে পরদিন ১৩ মার্চ আপিল বিভাগে আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদক। পরে আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর আদালত এ দুই আবেদনের শুনানির জন্য ১৪ মার্চ দিন ধার্য করেন। আপিল বিভাগ রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদককে জামিনের বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল (আপিলের অনুমতি চেয়ে) দায়ের করতে বলে চার মাসের জামিন ১৮ মার্চ পর্যন্ত স্থগিত করে। এ আদেশ অনুসারে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদক লিভ টু আপিল দায়ের করে।

পরে উভয়পক্ষের শুনানি শেষে রাষ্ট্রপক্ষ ও দুদকের লিভ টু আপিল মঞ্জুর করে আপিলের অনুমতি দেন প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে আপিল বিভাগের চার বিচারপতির বেঞ্চ। একই সঙ্গে হাইকোর্টের দেয়া জামিনের ওপর স্থগিতাদেশ দেয়া হয়েছে। এ আপিলের শুনানির জন্য৮ মে দিন ধার্য করেছে আপিল বিভাগ।

গত ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫ জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় রায় ঘোষণা করেন। রায়ে বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ৫ বছর এবং তার জেষ্ঠ্য পুত্র দলটির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান, মাগুরার সাবেক সংসদ সদস্য (এমপি) কাজী সালিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব ড. কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমানকে ১০ বছর করে কারাদন্ডাদেশ এবং দুই কোটি ১০ লাখ টাকা করে জরিমানা করে রায় দেয়। সাজার রায় ঘোষণার পর পরই খালেদা জিয়াকে রাজধানীর পুরনো ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয়। সেখানে সাজাভোগ করছেন তিনি।

আরো খবর »