কারাগারে খালেদার মোবাইল ফোনে কথা বলার সুবিধা অনিশ্চিত

Feature Image

কারাগার থেকে বন্দিরা স্বজনদের সঙ্গে মোবাইল ফোনে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে কথা বলার সুযোগ পেয়েছেন। পরীক্ষামূলকভাবে এক মাসের জন্যে একটি পাইলট প্রকল্প হিসেবে টাঙ্গাইল জেলা কারাগারে এ সুবিধা গত বুধবার থেকে চালু হয়েছে।

কারা কর্তৃপক্ষ বলছে, বন্দিদের মধ্যে শীর্ষ সন্ত্রাসী, জঙ্গি, নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠনের সদস্য এবং অপহরণ ও চাঁদাবাজির মামলায় অভিযুক্ত বন্দিরা ফোনে কথা বলার সুযোগ পাবেন না। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় কারাবন্দি বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এ সুবিধা পাবেন কি না সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সূত্র সুস্পষ্ট কিছু বলতে পারেনি।

আগামী দুই মাসের মধ্যে কাশিমপুর কারাগার ও কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দিদের জন্যে এ মোবাইল ফোন সুবিধা চালু হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে এ সুবিধা পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারেও চালু হবে কি না সে সম্পর্কে পাইলট প্রকল্পে কিছু উল্লেখ নেই। বেগম জিয়া কারাবন্দি হওয়ার আগেই প্রকল্পটি গ্রহণ করা হয়। বেগম জিয়া পুরনো কারাগারে একমাত্র বন্দি হিসেবে রয়েছেন। তাই তিনি এ ধরনের সুবিধা পাবেন কি না তা নির্ভর করছে বিশেষ সিদ্ধান্তের ওপর।

কারাসূত্র জানায়, মোবাইল ফোন ব্যবহারের সুবিধার জন্যে একটি বুথ স্থাপন ও এর সফটওয়্যার উন্নয়নের বিষয় রয়েছে। এটা ব্যয়বহুল এবং একাধিক বন্দির দিকে লক্ষ রেখেই তা করা হচ্ছে।

আরো খবর »