টেস্টে মাশরাফীকে নিতে আগ্রহী নয় বিসিবি

Feature Image

সাদা জার্সিতে ফিরতে চান মাশরাফী বিন মুর্তজা। তাইতো মাঝে মাঝে নিজেকে ঝালিয়ে নেন।কিন্তু তাকে টেস্ট দলে নেওয়ার ব্যাপারে আগ্রহী নয় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। এমনই ইঙ্গিত দিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

সর্বশেষ ২০০৯ সালে টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন মাশরাফী। এরপর কেটে গেছে আরও ৯ বছর। মূলত ইনজুরির কাছেই পরাজিত হয়ে বাদ পড়েছেন টেস্ট দল থেকে। তবে ইনজুরি কাটিয়ে শেষবার দলে ফেরার পর এখন পর্যন্ত দারুণ ফিট থেকেই খেলে যাচ্ছেন তিনি। এমনকি ঘরোয়া ক্রিকেটের চারদিনের ম্যাচও খেলেছেন সাবলীলভাবেই। তাই ইচ্ছাটা তার জাগতেই পারে। কিন্তু তাতে খুশি হননি বিসিবি সভাপতি। মাশরাফীকে একহাত নিয়ে পাপন রীতিমত বোমাই ফাটালেন, ‘কোথায়? কোন দেশে টেস্ট খেলবে সে (মাশরাফী)? দেশের বাইরে?’ শুধু তাই নয় মাশরাফীর পারফরম্যান্স নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি, ‘সে কী হিসেবে আসতে চায়, ব্যাটসম্যান না বোলার? সেটা বড় প্রশ্ন।’

বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘প্রতিদিন ওকে কমপক্ষে ২০ থেকে ২৫ ওভার বোলিং করতে হবে। ও বলছে পারবে? তাহলে তো আমাদের কিছু বলার নেই। ফিজিও যদি অ্যালাউ করে, আর ও যদি বলে পারবে তাহলে অবশ্যই স্বাগত জানাব। আমাদের কিন্তু সেই ধারণা নেই। যদি মনে করেন আমাদের দেশে খেলা, আমরা মাত্র ২ বা ৩ ওভার করাব… এখানে যদি খেলতে চায়, সেটা ভিন্ন বিষয়।’

গত বছর শ্রীলঙ্কায় মাশরাফীকে এক রকম জোর করেই টি-টুয়েন্টিতে অবসর নিতে বাধ্য করেছিলেন তিনি। এরপর টি-টুয়েটিতে অন্যান্য পেসারদের বাজে পারফর্ম্যান্সের কারণে আবার তাকে এ সংস্করণে চেয়েছিলেন। কিন্তু সেই অনুরোধ বিনীতভাবেই ফিরিয়ে দেন মাশরাফী। আর সেটাই বিসিবি সভাপতি স্বাভাবিকভাবে নিতে পারেননি তা বুঝিয়ে দিলেন নিজের কথাতেই, ‘আমাদের ধারণা, সে যদি ওয়ানডে খেলতে পারে টি-টোয়েন্টিও খেলা উচিত। ১০ ওভার যদি করতে পারে, ৪ ওভারও তার করা উচিত। এ কারণে তাকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। তখন সে আগ্রহ দেখায়নি। আমরা ধরে নিচ্ছি তার আগ্রহ নেই।’

তবে মাশরাফীকে একহাত নেওয়ার দিনে তার কিছু প্রশংসাও করেছেন পাপন, ‘আমি মনে করি সে যদি ফিট থাকে যে কোনো সংস্করণে তার খেলা উচিত। তার মতো খেলোয়াড় পাওয়া কঠিন। বড় দৈর্ঘ্যের ক্রিকেটে খেলাটা তার এবং ফিজিওর ওপর নির্ভর করছে।’ তবে এর আগে নতুন বিতর্কই তুললেন পাপন। তাতে নিজের চাপা ক্ষোভটা ঠিকই প্রকাশ করলেন তিনি। আর এটা বাংলাদেশের ক্রিকেটে জন্য অশনি সংকেতই বটে।

আরো খবর »