এবার মুখ খুললেন ডি ভিলিয়ার্স

Feature Image

বল টেম্পারিং-এর দায়ে অস্ট্রেলিয়ার তিন খেলোয়াড় স্টিভেন স্মিথ-ডেভিড ওয়ার্নার ও ক্যামেরন ব্যানক্রফটকে কঠোর শাস্তি দেওয়ার ঘটনার পর অনেকদিন কেটে গেলেও সেই রেশ ঠিকই রয়ে গেছে। বিশেষ করে অজি ও প্রোটিয়া ক্রিকেটারদের এখনও এই প্রশ্নের সন্মুখীন হতে হয়। এবার মুখ খুললেন দক্ষিণ আফ্রিকার বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান এবিডি ভিলিয়ার্স। তার মতে, তিন ক্রিকেটার জঘন্য অপরাধ করলেও তাদের শাস্তিটা অনেক বেশি হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, ‘কেপটাউন টেস্টে যা ঘটেছে, তা সত্যি অকল্পপনীয় ও অগ্রহণযোগ্য। তবে স্মিথরা যেই শাস্তি পেয়েছে সেটি অনেক বেশি হয়ে গেছে। তারা ভুল করেছে, এজন্য এমন শাস্তি দেয়া ঠিক হয়নি।’

গত মার্চে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজে খেলতে গিয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। কেপটাউনে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে বল দলের দুই সিনিয়র খেলোয়াড় অধিনায়ক স্মিথ ও সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারের পরামর্শে বল টেম্পারিং করেন ওপেনার ক্যামেরন ব্যানক্রফট। টিভি ক্যামেরায় এই কু-কীর্তি ধরা পরায় পরবর্তীতে তা স্বীকারও করেন তারা। এতে আইসিসির লঘু সাজার পর ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া স্মিথ-ওয়ার্নার এক বছরের জন্য এবং ব্যানক্রফটকে নয় মাসের জন্য নিষিদ্ধ করে।

এই তিন খেলোয়াড়ের শাস্তি নিয়ে ওই টেস্টে খেলা ডি ভিলিয়ার্স বলেন, ‘যা ঘটেছে তাতে ঘটনাটা খুব বড় হয়ে গেছে। অবশ্যই, এটি খুবই গুরুতর একটি ব্যাপার। তবে এটাকে এমন একটি জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে, এতে তারা অনেক বেশি চাপ অনুভব করেছে। তাদেরকে যে শাস্তি দেয়া হয়েছে, আমার মনে হয় তা বেশি হয়ে গেছে।’

স্মিথ-ওয়ার্নার-ব্যানক্রফটের শাস্তিতে খারাপ লেগেছে ডি ভিলিয়ার্সের। নিজের মনে কথা অকপটে স্বীকার করে নিলেন তিনি, ‘বল টেম্পারিংয়ের ঘটনায় ব্যক্তিগতভাবে তারা খুব কষ্ট পেয়েছে। তাদের জন্য আমার খারাপ লাগছে। বিশেষ করে স্মিথের জন্য। তাকে দেখে মনে হয়েছে, সে খুবই কষ্ট পেয়েছে।’

বল টেম্পারিংয়ের জন্য ঐ সিরিজে কালো দাগ পড়লেও, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তার দল দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলায় বেশ খুশী ডি ভিলিয়ার্স, ‘সত্যিই সিরিজের উপর কালো থাবা পড়েছে। এতে কোন সন্দেহ নেই। এমনটি হওয়া উচিত হয়নি। তবে আমরা যেভাবে খেলেছি, এটি ছিলো প্রশংসনীয়। ক্রিকেটের দিক দিয়ে দেখলে, আমাদের পারফরমেন্স ছিলো অসাধারণ। পিছিয়ে পড়েও আমরাই ৩-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতেছি।’

প্রায় দুই বছর বিরতির গত বছরের শেষ সপ্তাহে টেস্ট ক্রিকেটে ফিরেন ডি ভিলিয়ার্স। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে চারদিনের একমাত্র টেস্টের পর ভারতের বিপক্ষে ভারতের বিপক্ষে চার ম্যাচ খেলেন তিনি। তবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত পারফরমেন্স করেছেন ডি ভিলিয়ার্স। চারটি হাফ-সেঞ্চুরি ও ১টি সেঞ্চুরির ইনিংসে ৪২৭ রান করেন তিনি।

২০১৫ সালের জানুয়ারিতে কেপটাউনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে বড় ফরম্যাটে সেঞ্চুরি পর অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজে সেঞ্চুরির দেখা পান ডি ভিলিয়ার্স। তাই ঐ সেঞ্চুরিটি তার মনে দাগ কেটেছে, ‘দীর্ঘদিন পর কিছু অর্জন করা গেলে সেটির অনুভূতি প্রকাশ করার মতো নয়। ডারবানে অস্ট্রেলিয়ার কাছে হারের পর আমার সেঞ্চুরিতেই ম্যাচ জয়ের পথ পায় দল। শেষ পর্যন্ত জিততেও পারি, তাই এই সেঞ্চুরিটি আমরা সবসময় মনে থাকবে। সেঞ্চুরিটি ছিল অবিশ্বাস্য।’

আরো খবর »