আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা, এরপরই মহাকাশে বাংলাদেশ

Feature Image

অবশেষে মহাকাশে স্থান পাচ্ছে বাংলাদেশের প্রথম যোগাযাগ ও সম্প্রচার স্যাটেলাইট ‘বঙ্গবন্ধু-১’। ‘বঙ্গবন্ধু-১’ এই নামটির মাধ্যমেই জানিয়ে দেওয়া হচ্ছে- একটিই নয়, ভবিষ্যতে দেশের আরো কয়েকটি স্যাটেলাইট মহাকাশে উৎক্ষেপণ করা হবে।

আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা। এরপরই সাড়ে তিন হাজার কেজি ওজনের বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের উৎক্ষেপণের কাজ শুরু হবে। এটির কক্ষপথ ৩৬ হজার কিলোমিটার উপরে। স্যাটেলাইটটির কাভারেজ হবে বাংলাদেশ ছাড়াও ইন্দোনেশিয়া থেকে তাজিকিস্তান পর্যন্ত।

এ স্যাটেলাইটটি পরিচালনার জন্য বাংলাদেশ কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কম্পানি লিমিটেড নামের একটি কম্পানি গঠনের কাজও সম্পন্ন হয়েছে। ভূমি থেকে উপগহটি নিয়ন্ত্রণের জন্য গাজীপুর জেলার জয়দেবপুর এবং রাঙ্গামাটির বেতবুনিয়ায় বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানি লিমিটেডের (বিটিসিএল) নিজস্ব জমিতে দুটি ‘গ্রাউন্ড স্টেশন’ নির্মাণ কাজও সম্পন্ন হয়েছে।

এদিকে সংশ্লিষ্টরা আগেই জানিয়েছেন, উৎক্ষেপণের পর বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইটের মহাকাশে নিজ কক্ষপথের নির্দিষ্ট স্থানে পৌঁছতে আট থেকে ১২ দিন সময় লাগবে। এয়ার ট্রাফিকের কারণে এ সময় লাগবে। এরপর স্যাটেলাইটটি দেশের দুটি গ্রাউন্ড স্টেশনের সাথে পুরোপুরি যোগ্যাযাগ করতে সক্ষম হবে। বাণিজ্যিক কার্যক্রমে যেতে আরো তিন মাস সময় লাগতে পারে।

বাংলাদেশে কমিউনিকেশন স্যাটেলাইট কম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইফুল ইসলামও আজ বিকেলে জানান, আমরাও এখন ক্ষণগণনার মধ্যে আছি। যুক্তরাষ্ট্রের সময় বিকেল ৪টা ১২ মিনিট থেকে সন্ধ্যা ৬টা ২২ মিনিটের মধ্যে যে কোন সময় ‌উৎক্ষেপণ সম্পন্ন হওয়ার কথা।

বাংলাদেশে এই কাঙ্খিত সময়টি আজ রাত ২টা ১২ মিনিট থেকে ৪টা ২২ মিনিট। এ সময়ের মধ্যেই তথ্য-প্রযুক্তিগত দিক থেকে মর্যাদার আসনে বাংলাদেশ স্থান পাওয়ার কথা। দেশের প্রথম কৃত্রিম উপগ্রহ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ মহাকাশে উৎক্ষেপণের মাধ্যমে রাতেই স্যাটেলাইটের অধিকারী বিশ্বের ৫৭তম দেশ হিসাবে বাংলাদেশের আত্মপ্রকাশ ঘটার কথা। পদ্মা সেতুর পর বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট হবে দেশেবাসীর জন্য দ্বিতীয় গর্বের বিষয়।

আরো খবর »