জি গ্রুপে ফেবারিট বেলজিয়াম ও ইংল্যান্ড

Feature Image

খেলাধুলা ডেস্ক : আসন্ন বিশ্বকাপে ‘জি’ গ্রুপে ফেবারিট বেলজিয়াম ও ইংল্যান্ড। গ্রুপের বাকী দুটি দল হচ্ছে তিউনিশিয়া এবং প্রথমবারের মত বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়া পানামা। তবে তারাও বিষ্ময়কর কিছু ঘটাতে পারে।

কেভিন ডি ব্রুইয়ান, এডেন হেজার্ড, এবং রোমেলু লুকাকুকে নিয়ে গঠিত বেলজিয়াম দলটিকে বলা হয় ‘গোল্ডেন জেনারেশন’। তারা মাঠের লড়াইয়ে ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে। যোগ্য দল হিসেবেই চার বছর আগের বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনাল খেলেছিল বেলজিয়াম। কিন্তু ইউরো ২০১৬ আসরের শেষ আট থেকে বিদায় নেবার কারণে বরখাস্ত হয়েছেন কোচ মার্ক উইলমটস। পরিবর্তিত হিসেবে বিষ্ময়করভাবে নিয়োগ পেয়েছেন এভারটনের সাবেক বস রবার্তো মার্টিনেজ।

বাছাই পর্বে মার্টিনেজের এই দলটি ছিল দুর্দান্ত। তবে মেধাবিদের নিয়েও মুল পর্বে কোচ আধিপত্য বজায় রাখতে পারবেন কিনা সেটি নিয়ে সন্দেহ রয়েছে। মিডফিল্ডার রাজা নাইঙ্গুলানকে দলে না রাখার সিদ্ধান্তটি মেনে নিতে পারেনি দেশটির সমর্থকরা।
বিশ্বকাপে লাল জার্সির দলটির সেরা সাফল্য হচ্ছে ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে পৌঁছানো।

এদিকে সর্বশেষ দুটি বড় আসরে শেষ আটে পৌঁছাতে না পারলেও এবারের টুর্নামেন্ট ভাল করার প্রত্যাশা করছে ইংল্যান্ড। টুর্নামেন্টে অধিনায়ক হ্যারি কেনের দক্ষতার উপর নির্ভর করছে সাউথ গেটের অধিনস্ত দলটির অগ্রযাত্রা।
তারুণ্য নির্ভর ইংলিশ স্কোয়াডের আক্রমনভাগ মেধাবীতে পরিপুর্ন। তবে কোচের পছন্দের মধ্যমাঠে ঘাটতি আছে।

১৯৭৮ সালে বিশ্বকাপে একটি ম্যাচ জয় করা তিউনিশিয়ার জন্য এবারের আসর শুরুর আগেই এসেছে দু:সংবাদ। দলের তারকা ফুটবলার ইউসেফ এমসাকনি হাঁটুর লিগামেন্ট ইনজুরিতে পাড়েছেন। যে কারণে তাকে বিশ্বকাপের স্কোয়াড থেকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এই ঘটনাকে সুপার স্টার লিওনেল মেসিকে ছাড়া আর্জেন্টিনার রাশিয়া বিশ্বকাপে গমনের সঙ্গে তুলনা করেছেন কোচ নাবিল মালুল।

টুর্নামেন্টের র‌্যাংকিংয়ে ১০০০ ভাগের একভাগ যোগ্যতা সম্পন্ন পানামার রাশিয়া বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন কারাটাই একটি বিষ্ময়। বাছাইপর্বে যুক্তরাস্ট্রের মত শক্তিশালী দলকে টপকে প্রথমবারের মত বিশ্বকাপ খেলার যোগ্যত অর্জন করেছে পানামা। অথচ গত মার্চে এক প্রীতি ম্যাচে সুইজারল্যান্ডের কাছে ৬-০ গোলে পরাজিত হয়েছে কনকাকাফ অঞ্চলের বেশ কয়টি শক্তিশালী দলকে টফকে রাশিয়ার টিকিট লাভ করা দলটি।

আরো খবর »