গাড়ির পিছনে চুম্বনে ব্যস্ত দুই মহিলা! জানেন এরপর কি ঘটল?

Feature Image

একে অপরকে চুম্বন করছেন! তাও আবার কিনা দুই মহিলা যাত্রী। আর সেই অপরাধে ওই দুই মহিলাকে গাড়ি থেকে নামিয়ে দিলেন উবর চালক। চালকের অভিযোগ, ওই দুই মহিলা অপ্রীতিকর ভঙ্গিতে চুম্বন করছিলেন। যাতে তাঁর যথেষ্ট অস্বস্তি হচ্ছিল বলে দাবি ড্রাইভারের।

যদিও উবরের ওই ড্রাইভারের বক্তব্য সম্পূর্ণ খারিজ করে দিয়েছেন ওই দুই মহিলা। তাদের পালটা দাবি, চুম্বন ঠিকই করছিলাম। কিন্তু কোনও অস্বাভাবিক আচরণ ছিল না এর মধ্যে। ঘটনা সামনে আসতে চালকের লাইসেন্স বাতিল করেছে উবর সংস্থা।

বন্ধুর জন্মদিন সেরে ম্যানহাটনে ফিরছিলেন ওই দুই মহিলা। তাঁদের কথায়, ট্যাক্সির পিছনের সিটে বসে স্বাভাবিক কথাবার্তা বলছিলেন দু’জনে। এরই মধ্যে একজন দাবি করেন, যথেষ্ট দূরত্ব রেখেই গল্প করছিলাম। এরপর, ‘আবেগের বশবর্তী’ হয়ে চুম্বন করি কিন্তু কোনও অশ্লীল আচরণের লেশমাত্র ছিল না। এই দৃশ্য দেখে গাড়িয়ে থামিয়ে তাঁদের নেমে যেতে বলেন চালক। রীতিমত ম্যানহাটনে মাঝ রাস্তায় তাঁদের জোর করে নামিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। যদিও উবরের তরফে ইতিমধ্যে বিষয়টি কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে। একই সঙ্গে সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, যে কোনও ধরনের বৈষম্য বরদাস্ত করা হবে না।

উল্লেখ্য, ওই দুই মহিলা নিজেদের সমকামী হিসাবে পরিচয় দেন এবং তাঁরা যে বিগত দু’বছর ধরে সম্পর্ক রয়েছেন সেকথাও স্পষ্ট করেন। এই ঘটনার পর নিউ ইয়র্ক শহরে সমকামীদের নিরাপত্তা ও স্বাধীনতা নিয়ে রীতিমতো উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন তাঁরা।

আরো খবর »