প্রাণে বাঁচলেও আতঙ্কিত তামিমরা

Feature Image

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে একটি মসজিদে জুমার নামাজের সময় বন্দুকধারীর গুলিতে অন্তত ২৭ জন নিহত হয়েছেন বলে খবর দিয়েছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো। স্থানীয় সময় আজ শুক্রবার জুম্মার নামাজের সময় বেলা দেড়টার দিকে ওই সন্ত্রাসী হামলা হয়। ওই মসজিদে জুমার নামাজ পড়তে গিয়েছিলেন তামিম ইকবালসহ সফররত বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের কয়েকজন খেলোয়াড়। তবে তারা মসজিদে প্রবেশের আগেই এই হামলার ঘটনা ঘটায় অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন। কিন্তু এই ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েন খেলোয়াড়েরা। 

বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার খালেদ মাসুদ পাইলট বলেন, দলের প্রতিটি খেলোয়াড় নিরাপদে আছেন। তাদের কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। সবাই এখন হোটেলে অবস্থান করছেন।

নিউজিল্যান্ডের স্থানীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, হামলার ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা প্রথমে নিশ্চিত হওয়া না গেলেও পরে ২৭ জনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। এ ঘটনায় একজনকে আটক করেছে স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে আল-জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, জুম্মার নামাজের সময় হঠাৎ করে এক ব্যক্তি মসজিদে প্রবেশ করে এবং স্বয়ংক্রিয় অস্ত্র দিলে গুলি চালাতে শুরু করে। 

স্থানীয় গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, তৃতীয় ও শেষ টেস্টকে সামনে রেখে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে হ্যাগলি ওভাল মাঠে লিটন দাস ও নাঈম হাসান ছাড়া বাংলাদেশ দলের সবাই অনুশীলন করছিলেন। অনুশীলন শেষে তারা ওই মসজিদে জুমার নামাজ আদায় করতে যান। স্থানীয় সময় বেলা দেড়টায় নামাজ শুরু হওয়ার ঠিক ১০ মিনিট পর একজন বন্দুকধারী সিজদায় থাকা মুসল্লিদের লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি ‍গুলি চালায়।  

পরে বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা দৌড়ে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে হোটেলে ফিরে আসেন। তবে তারা ওই হামলার ঘটনায় আতষ্কিত হয়ে পড়েন। 

ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভাল মাঠে শনিবার বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টায় নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তৃতীয় ও শেষ টেস্টে মাঠে নামার কথা রয়েছে। 

আরো খবর »