বনপাড়া ডিগ্রী কলেজে অতিরিক্ত ফি আদায়ের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন

Feature Image

নাটোর:  নাটোরের বড়াইগ্রামের বনপাড়া ডিগ্রী কলেজে ¯œাতক দ্বিতীয় বর্ষের পরীক্ষায় অতিরিক্ত ফি আদায়ের প্রতিবাদে শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল, অবস্থান ধর্মঘট ও মানববন্ধন করেছে। বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে কলেজ ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল শেষে মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা পরীক্ষায় অতিরিক্ত ফি আদায়, শিক্ষকদের নিয়মিত ক্লাশ গ্রহণ না করা, কলেজ ক্যান্টিন বন্ধ রাখার বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা, ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানিয়ে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বারেন্দ্র নাথ মৈত্রের অপসারণ দাবি করেন।

 

কলেজের শিক্ষার্থী ও স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা ই¯্রাফিল মিলন জানান, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ¯œাতক ২য় বর্ষের পরীক্ষায় বনপাড়া ডিগ্রী কলেজ থেকে ২২০ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। পরীক্ষার ফরম পূরণের সময় ফি বাবদ প্রতি পরীক্ষার্থীর কাছ থেকে ৫ হাজার পাঁচশত পঁয়ত্রিশ টাকা করে আদায় করছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। এই ফি অন্যান্য কলেজ থেকে প্রায় ২ হাজার টাকা অতিরিক্ত বলে শিক্ষার্থীরা দাবি করছেন। এছাড়া কলেজের শিক্ষকরা ঠিকমতো ক্লাশ না নিয়ে নিজেরা ব্যক্তিগত ব্যবসা বা অন্য পেশায় বেশী সময় দিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শিক্ষক নিয়োগে ও ভুয়া সার্টিফিকেট দেখিয়ে এমপিও অনুদান গ্রহণেও রয়েছে নানাবিধ অভিযোগ। শিক্ষার্থীরা আরও জানায়. কলেজ কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণে ক্যান্টিন দীর্ঘদিন যাবত বন্ধ রয়েছে। শিক্ষার্থীরা এই কলেজের ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনতে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ও দুর্নীতির মাধ্যমে নিয়োগপ্রাপ্ত শিক্ষকদের অপসারণ দাবি করেছেন। পাশাপাশি দ্রæত অধ্যক্ষ নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন করারও দাবি জানানো হয়।

 

ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ বারেন্দ্র নাথ মৈত্র জানান, অতিরিক্ত ফি আদায়ের অভিযোগটি ঠিক নয়। ফরম পূরণের সময় শিক্ষার্থীদের বকেয়া বেতনসহ মোট টাকা নির্ধারণ করায় এই অতিরিক্ত ফি কথাটি উঠে এসেছে।

 

কলেজের সভাপতি ও ইউএনও ইশরাত ফারজানা জানান, মানববন্ধন হয়েছে এমন খবর আমার জানা নাই। তবে পরীক্ষার ফি অতিরিক্ত নেয়া হচ্ছে বলে আমার কাছে কয়েকজন ছাত্র অভিযোগ নিয়ে এসেছে। মূলত: পরীক্ষার ফি’র সাথে কলেজের নিয়মিত বেতন ও উন্নয়ন ফি ধার্য করায় পরীক্ষার্থীরা অতিরিক্ত নেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছে। তিনি আরও জানান, গরীব শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে বেতন মওকুফ করে শুধুমাত্র পরীক্ষার ফি গ্রহন করা হচ্ছে।

আরো খবর »