জাদুঘরে শিশুকে স্তন্যপানে বাধা, মায়ের অভিনব প্রতিবাদ

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

নিউজ ডেস্ক: আগস্টের প্রথম সপ্তাহে বিশ্বজুড়ে পালিত হয়েছে ‘মাতৃদুগ্ধ সপ্তাহ’। এ নিয়ে মায়েদের উৎসাহিত করতে দেশে দেশে বেশ প্রচারণাও চলেছে।

কিন্তু এরই মধ্যে যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডনে এক মা অভিযোগ করেছেন এক বছরের ছেলেকে দুধ পান করানোর সময় তিনি বাধার মুখে পড়েছেন।

লন্ডনের ভিক্টোরিয়া এবং অ্যালবার্ট জাদুঘরের কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ তুলেই ক্ষান্ত হননি ওই মা।

কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত যে কতটা অযৌক্তিত ছিল তা তুলে ধরে মাইক্রোব্লগ টুইটারে ফুঁসে উঠেছেন তিনি।

টুইটে ওই মা জাদুঘরে তার অবস্থানকালীন ছবি প্রকাশ করে লিখেন, কয়েক সেকেন্ডের জন্যে ছেলেকে দুধ পান করানোর সময় তার স্তন অনাবৃত হয়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গেই তাকে শরীরের ঊর্ধ্বাঙ্গ ঢেকে ফেলতে বলে জাদুঘরের কর্তৃপক্ষ।

এতে প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ ওই নারী জাদুঘরে থাকা ‘ম্যানকাইন্ড’, ‘প্লুটো’ এবং ‘প্রসারপিনা’ এবং ‘ভার্চুমনাস’ এবং ‘পোমোনা’ নামের বিখ্যাত ভাস্কর্যগুলোর ছবি পোস্ট করেন, যাতে নারী মূর্তিগুলো ছিল উন্মুক্ত বক্ষের। এরপর তিনি প্রশ্ন তোলেন, জাদুঘরে যদি নারীদের এমন ভাস্কর্য থাকতে পারে, তাহলে একজন মা তার সন্তানকে স্তন্যপান করালে তা অশালীনতা হবে কেন?

ওই নারী দাবি করেন, ছেলেকে স্তন্যপান করানোর সময় তিনি যথেষ্ট সচেতন ছিলেন। কিন্তু শিশুটি ছেলে দুষ্টুমি করায় কয়েক সেকেন্ডের জন্য তার বুক দেখা যায়। সামান্য এ ঘটনাতে জাদুঘর কর্তৃপক্ষ চোটপাট করায় তিনি হতভম্ব হয়ে যান।

তবে ওই নারী জানান, জাদুঘরের একজন নারী কর্মী বেশ ভদ্রভাবেই তাকে বুক ঢাকতে বলেছেন। যদিও একথা তার কাছে অসম্মানজনকই মনে হয়েছে।

এদিকে ওই মা টুইটারে ক্ষোভ জানানোর পর সমালোচনার মুখে পড়ে ভিক্টোরিয়া এবং অ্যালবার্ট জাদুঘরের কর্তৃপক্ষ। পরে টুইট করে ওই নারীর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করেন জাদুঘরের পরিচালক।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »